অভিনয়ের কথা বলে তরুণীকে নরসিংদী এনে পালাক্রমে ধর্ষণ, অতঃপর……!

মো. হৃদয় খান, স্টাফ রিপোর্টার: নাটকে অভিনয়ের সুযোগ করে দেওয়ার কথা বলে নরসিংদী নিয়ে গণধর্ষণের করার অভিযোগে এক তরুণী রামপুরা থানায় মামলা করেছেন। তার মামলার প্রেক্ষিতে পুলিশ তিনজনকে গ্রেফতার করেছে। রবিবার ঢাকার মুখ্য মহানগর হাকিম আদালত আসামি নাহিদ শাহরিয়ার রাজ, হারুন ভূঁইয়া ও মোয়াজ্জেম হোসেন ভূঁইয়ার দুই দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন। দুই আসামি এখনো পলাতক আছে।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা রামপুরা থানার পুলিশ পরিদর্শক মো. মনিরুজ্জামান খান তিন আসামিকে আদালতে হাজির করে দশ দিন রিমান্ডে নেওয়ার আবেদন করেন। আদালতে মনিরুজ্জামান তার প্রতিবেদনে বলেন, তদন্ত জানা যায়, আসামি নাহিদ শাহরিয়ার রাজ ও ডিজে সোহাগ অর্থের বিনিময়ে ভিকটিম তরুণীকে অপর আসামিদের কাছে তুলে দেয়। আসামি হারুন তার নিজ প্রাইভেটকারযোগে তরুণীকে নিয়ে নরসিংদীতে নিয়ে হারুন, খোকা, আজাদ ও মাসুদ তাকে পালাক্রমে ধর্ষণ করে। মামলার

এজাহারে বলা হয়েছে, গত ৪ নভেম্বর রাতে মেয়টি ধর্ষণের শিকার হন। এরপর গত ৮ নভেম্বর মেয়েটি বাদী হয়ে গণধর্ষণের মামলা করেন। মামলায় তরুণী অভিযোগ করেছেন, রামপুরার একটি ফাস্ট ফুড দোকানে তিনি চাকরি করেন। রামপুরায় এনএস রাজ (নাহিদ শাহরিয়ার রাজ) নামের এক যুবক তাকে টিভি নাটকে অভিনয় করার প্রস্তাব দেন। পরে তরুণী সেই প্রস্তাবে রাজি হন।

রাজ তাকে দেখা করার কথা বললে তিনি গত ৪ নভেম্বর রাতে হাতিরঝিল এলাকায় আসেন। পরে সেখানে রাজের পরিচিত ডিজে সোহাগ আসে। তাদের সঙ্গে ওই তরুণী নাটকের স্ক্রিপট নিয়ে কথা বলতে থাকে। এরপর সেখানে একে একে আসে হারুন মোল্লা, মাসুদ ও আজাদ।