বছরে দু’টির বেশি বিদেশি লিগে খেলতে পারবেন না সাকিবরা

স্পোর্টস আপডেট ডেস্ক: বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) সঙ্গে কেন্দ্রীয় চুক্তিতে থাকা ক্রিকেটাররা বছরে দুইটির বেশি বিদেশি লিগে খেলতে যেতে পারবেন না বলে জানিয়েছেন বিসিবির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা নিজাম উদ্দিন চৌধুরী।

এই সিদ্ধান্তের ফলে সবচেয়ে বেশি ক্ষতির মুখে পড়বেন বাংলাদেশ দলের সবচেয়ে বড় তারকা সাকিব আল হাসান। তিনি বিশ্বজুড়ে অন্তত চারটি লিগে খেলে বেড়ান। এগুলো হলো আইপিএল, সিপিএল, বিগব্যাশ ও পিএসএল।

এ ছাড়া মোস্তাফিজুর রহমান, মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ ও তামিম ইকবালও বিদেশি লিগে খেলেন। এই তিনজনের মধ্যে মোস্তাফিজ এতোদিন কেবল আইপিএল খেলতেন। এখন তিনি পিএসএলেও দল পেয়েছেন। রিয়াদ পিএসএলে খেলার পাশাপাশি গত মৌসুমে খেলেছেন সিপিএলও। যেখানে দল পেয়েছিলেন মেহেদি হাসান মিরাজও। তামিম অবশ্য এখন শুধু পিএসএল খেলছেন।

এর মধ্যে যোগ হয়েছে টি-টেন ক্রিকেট লিগ। আইসিসির স্বীকৃত কোনো লিগ নয় এটি। তারপরও টি-টেন লিগে খেলতে হলেও বিসিবির অনুমতি (এনওসি) নিতে হবে ক্রিকেটারদের।

জানা গেছে, কেন্দ্রীয় চুক্তিতে থাকা ক্রিকেটারদেরকে ইতোমধ্যেই এই সিদ্ধান্ত জানিয়ে দিয়েছে বোর্ড। যা এখন থেকেই প্রযোজ্য হবে। ফলে সাকিব আল হাসান ঠিক কোন কোন বিদেশি লিগ খেলবেন, তা নিয়ে তৈরি হলো অনিশ্চয়তা।

এ বিষয়ে বিসিবির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা বলেন, ‘আমরা বছরে দুটি করে এনওসি দিবো ক্রিকেটারদের। যাতে তারা পর্যাপ্ত বিশ্রাম পায় ও ইনজুরিমুক্ত থাকতে পারে। এর মাধ্যমে সব ক্রিকেটারকে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের জন্য প্রস্তুত রাখা যাবে।’

ঠিক কী কারণে এমন একটি সিদ্ধান্ত নেয়া হলো, তা নিশ্চিত করেননি বিসিবির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা। তবে ধারণা করা হচ্ছে, দক্ষিণ আফ্রিকা সফরের চরম ব্যর্থতার কারণেই বিসিবি এমন পদক্ষেপ নিলো। এ ছাড়া ঘরোয়া পর্যায়ে জাতীয় দলের ক্রিকেটারদের খেলা নিশ্চিত করার জন্যও এমন সিদ্ধান্ত নেয়া হয়ে থাকতে পারে।