নরসিংদীতে কোর্ট আঙ্গিনায় ঘুষের টাকা চাইতে গিয়ে জনতার হাতে পুলিশ লাঞ্চিত

মো. হৃদয় খান, স্টাফ রিপোর্টার: নরসিংদী জেলা কোর্ট আঙ্গিনায় ঘুষের টাকা চাইতে গিয়ে কালাম নামে এক পুলিশ কনস্টেবল জনতার হাতে লাঞ্চিত হয়েছে। আজ ১৫ নভেম্বর বুধবার বিকেলে জেলা ও দায়রা জজ আদালত ভবনের সামনে এ ঘটনা ঘটে।

ঘটনার বিবরনে জানা যায়, গত ২ মাস পূর্বে মনোহরদী থানার বড়চাপা ইউনিয়নের জামালপুর গ্রামের সুলতান উদ্দিনের পুত্র দ্বিন ইসলাম বাদী হয়ে শাহজাহান গংদের বিরুদ্ধে সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট চন্দন কান্তি নাথের আদালতে একটি সি. আর. মামলা দায়ের করেন। মামলাটি বড়চাপা ইউনিয়নের চেয়ারম্যানকে তদন্ত করার নির্দেশ প্রদান করা হয়। কোর্ট থেকে তদন্তের জন্য মনোহরদী থানার মাধ্যমে চেয়ারম্যানকে প্রসেস দিলেও ঘুষের টাকা না দেওয়ায় প্রসেস চেয়ারম্যানকে না দিয়ে নিজের কাছে রেখে দ্বিন ইসলাম ও শাহজাহানের নিকট টাকা চেয়ে আসছিলো কনস্টেবল। কোর্টের আদেশ অমান্য করে নোটিশ জারি না করে বাদী ও বিবাদীর কাছে টাকা দাবি করেন। ভয়-ভীতি প্রদর্শন করে কোর্ট আঙ্গিনা থেকে বিবাদীদের নিকট থেকে টাকা গ্রহন করে বাদী দ্বিন ইসলামের কাছে ঘুষের টাকা দাবি করলে টাকা দিতে অস্বীকার করায় কনস্টেবল উত্তেজিত হয়ে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ শুরু করলে কোর্টে আগত আইন আশ্রয়ী জনগন এগিয়ে এসে কনস্টেবল কালামকে লাঞ্চিত করে। এসময় কোর্টে কর্মরত অন্যান্য পুলিশ এসে জনতার হাত থেকে কনস্টেবলকে রক্ষা করে। পরে দোষী কনস্টেবলের বিচারের জন্য কোর্ট ইনসপেক্টরকে অবগত করা হয়।

কনস্টেবল কালামের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘মাছের রাজা ইলিশ, দেশের রাজা পুলিশ। আমাকে টাকা দিতেই হবে টাকা না দিলে আমি চেয়ারম্যানের কাছে নোটিশ পৌছাবো না। আমাকে কেউ কিছু করতে পারবে না।’

এ ব্যপারে কোর্ট ইনসপেক্টর কোন কথা বলতে রাজি হয় নি।