হাতিয়ায় র‌্যাবের সাথে বন্দকযুদ্ধে জলদস্যু বাহিনী প্রধানসহ নিহত দুই, অস্ত্র উদ্ধার


নোয়াখালীর দ্বীপ উপজেলা হাতিয়ায় র‌্যাবের সাথে বন্দকযুদ্ধে জলদস্যু বাহিনী প্রধান সাইফুল ইসলাম(৩৫) ও তার সেকেন্ড ইন কমান্ড সফিক(২৪) নিহত হয়েছে।

মঙ্গলবার ভোরে বয়ার চরের চতলার ঘাটে এই বন্দকযুদ্ধের ঘটনা ঘটে। এ সময় র‌্যাবের এক এ.এস.আই ও এক কনষ্টেবল আহত হন। ঘটনাস্থল থেকে ছয়টি দেশি বিদেশি বন্দুক, ১০টি রকেট প্লায়ার, ৩৭টি মোবাইল সেট ও মুক্তিপনের ৫৪ হাজার টাকা উদ্ধার করে র‌্যাব।

র‌্যাব ১১ সিপিসি-৩ লক্ষীপুর ক্যাম্পের সিনিয়র সহকারী পুলিশসুপার মোঃ জসিম উদ্দিন চৌধুরী জানান, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রনালয়ের তালিকাভুক্ত জলদস্যু সাইফুল ইসলাম তার বাহিনী নিয়ে দীর্ঘদিন থেকে হাতিয়ার মেঘনা নদী ও বঙ্গোপসাগরে মাছধরা নৌকায় ডাকাতি, জেলেদেরকে অপহরণের পর মুক্তিপণ আদায় করে আসছে। গোপন খবরের ভিত্তিতে মঙ্গলবার ভোর সাড়ে তিনটার দিকে জলদস্যুরা ডাকাতির প্রস্তুতি নিচ্ছে খবর পেয়ে হানা দেয় র‌্যাব। এ সময় সাইফুলের সহযোগীরা র‌্যাবকে লক্ষ্য করে গুলি চালালে আত্মরক্ষার্থে র‌্যাবও পাল্টা গুলি ছোঁড়ে। নিহতদের মরদেহ ময়না তদন্তের জন্য নোয়াখালী জেনালে হাসপাতালে পাঠানোর প্রস্তুতি চলছে।

র‌্যাবের এ.এস.আই মফিজুল ও কনষ্টেবল মাহবুবকে সুবর্ণচর উপজেলা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্সে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে।

নিহত জলদস্যু বাহিনী প্রধান সাইফুল ইসলাম হাতিয়ার কালির চরের আলী আহম্মদের ছেলে। বিরুদ্ধে হত্যা, ডাকাতি, অপহরণ সহ বিভিন্ন অপরাধে ৯টি মামলা রয়েছে। নিহত সফিক একই গ্রামের দুলাল মাঝির ছেলে।