কাঁঠালিয়ায় গৃহবধূর রহস্যজনক মৃত্যু,সন্দেহের তীর স্বামীর দিকে

মোঃমোছাদ্দেক বিল্লাহ, ঝালকাঠি: কাঁঠালিয়ায় এক গৃহবধূর রহস্যজনক মৃত্যু হয়েছে।নিহত সুলতা রানী হাওলাদার (১৮) উপজেলার বিনাপানি গ্রামের পরেশ চন্দ্র বালির ছেলে শিপন বালির স্ত্রী।সে মাধ্যমিক পরীক্ষর্থী ছিলো।

বুধবার রাতে শশুর বাড়িতে তার মৃত্যু হয়। বৃহস্পতিবার সকালে ওই বাড়ি থেকে তার মরদেহ উদ্ধার করে মর্গে আনে পুলিশ।
কাঁঠালিয়া থানার ওসি এম আর শওকত আনোয়ার ইসলাম জানান, এ ঘটনায় একটি অপমৃত্যুর মামলা হয়েছে। ময়না তদন্তের পরে মৃত্যুর সঠিক কারণ জানা যাবে।

তবে নিহতের পরিবার দাবি করেছে, যৌতুকের টাকা না পেয়ে স্বামী ও শ্বশুর বাড়ির লোকজন তাকে হত্যা করেছে। নিহতের পরিবার স্থানীয় সাংবাদিকদের জানায়, বরগুনার বেতাগী উপজেলার জোয়ার করুণা গ্রামের বিমল চন্দ্র হালদারের মেয়ে সুলতা রানী হাওলাদারের সঙ্গে এক বছর আগে বিয়ে হয় শিপন বালির।

শিপন বেকার থাকায় বিয়ের পর থেকেই শ্বশুর বাড়ির লোকজনের কাছে যৌতুক হিসেবে দেড় লাখ টাকা দাবি করে আসছিল। বুধবার রাতে শিপন তাঁর শাশুরির কাছে মোবাইল ফোনে যৌতুকের দাবিকৃত টাকার জন্য চাপ দেয়। এ নিয়ে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে বাকবিতন্ডা হয়। এক পর্যায়ে স্বামী শিপন শ্বাসরোধ করে স্ত্রীকে হত্যার পরে মুখে বিষ ঢেলে দিয়ে আত্মহত্যার প্রচারণা করে। তবে নিহতের স্বামী শিপনের দাবী পারিবারিক কলহের জের ধরে স্ত্রী বিষপান করেছে।