ডাক বিভাগের এ সেবা উদ্বোধন করতে পেরে আমি আনন্দিত: জয়

সময়ের কণ্ঠস্বর- পোস্ট অফিসের মাধ্যমে দেশের মানুষকে ব্যাংকিং সুবিধার (আন ব্যাংকড) আওতায় আনতে ডাক টাকা চালু করেছে ডাক বিভাগ। মোবাইলের মাধ্যমে এ টাকা (মোবাইল ফাইন্যান্সিয়াল সার্ভিস) ব্যবহার করা যাবে। আজ সোমবার দুপুরে সচিবালয়ে ডাকা ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের সম্মেলন কক্ষে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে এ টাকার উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ছেলে ও তার তথ্য-প্রযুক্তি বিষয়ক উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়।

এসময় সজীব ওয়াজেদ জয় বলেন, ‘ডাক বিভাগের এ সেবা উদ্বোধন করতে পেরে আমি আনন্দিত। আমি আরও আনন্দিত যে, সর্বনিম্ন দুই টাকা রেখে এ অ্যাকউন্ট পরিচালনা করা যাবে। অর্থাৎ অ্যাকাউন্টে কমপক্ষে দুই টাকা ব্যালেন্স রাখতে হবে। বাংলাদেশ ব্যাংক এ প্রক্রিয়া শুরু করেছিল ৫ টাকা দিয়ে।’

তিনি আরও বলেন, ‘গ্রামে বা ইউনিয়ন পর্যায়ে সাধারণত ব্যাংকের শাখা থাকে না। ব্যাংক করতে অনেক টাকা লাগে, সময় লাগে। এ কারণে আমরা চেয়েছি ডাকঘরের মাধ্যমে এই সেবা গ্রামের মানুষের কাছে পৌঁছাতে। যাতে তারা গ্রামে বসে টাকা লেনদেন, ভাতা পাওয়া ও খরচ করতে পারেন।’

অনুষ্ঠানে ডাকা ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম বলেন, ‘২০২১ সালের মধ্যে ডাক বিভাগ সম্পূর্ণ ডিজিটাল হবে।’ তিনি আরও বলেন, ‘আমাদের লক্ষ্য ২০১৮ সালের মধ্যে তিন কোটি আনব্যাংকড মানুষকে এই সেবার আওতায় আনা।’

অনুষ্ঠানে টাঙ্গাইলের বাসিন্দা মর্জিনা বেগমের মোবাইল নম্বর দিয়ে হিসাব খুলে এই সেবার উদ্বোধন করা হয়। মর্জিনা বেগমের কোনও ব্যাংক হিসাব নেই। প্রসঙ্গত, ডাক টাকায় কারিগরি সহযোগিতা দিচ্ছে ডিমানি ও আইটিসিএল।

অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন,বিটিআরসির চেয়ারম্যান ড. শাহজাহান মাহমুদ, ডাকা ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রণালয়ের সচিব শ্যামসুন্দর শিকদার প্রমুখ।