বয়স মাত্র ছয় বছর, তার আয় কোটি টাকা ছাড়িয়ে!

ইন্টারনেট রঙ্গ ডেস্ক– বয়স মাত্র ছয় বছর। এরই মধ্যে বছরে তার আয় কোটি টাকা ছাড়িয়ে গিয়েছে। যা অনেক বড় বড় ব্যবসায়ীকেও হার মানিয়েছে। রায়ান নামের ছোট্ট এই শিশুটি যুক্তরাষ্ট্রের অধিবাসী। মজার ব্যাপার হল, কোথাও কাজ করে নয়, রায়ান তার নিজস্ব ইউটিউব চ্যানেলের মাধ্যমে এই টাকা উপার্জন করছে।

ভিডিও স্ট্রিমিং সাইট ইউটিউবে চ্যানেল খুলে, ভিডিও পোস্ট করে অনেকেই আয় করছেন, জনপ্রিয় হচ্ছেন। নানা দেশেই এখন ইউটিউব তারকার দেখা পাওয়া যায়। তবে রায়ান ইউটিউবের শীর্ষ শিশুস্থানীয় তারকাদের একজন। ঘণ্টার পর ঘণ্টা তার ভিডিও দেখে সময় কাটে বিশ্বের নানা দেশের অনেক শিশুর।

যুক্তরাষ্ট্রের কোনো এক জায়গায় রায়ানের বাস। তবে তার নামের শেষাংশ আর ঠিকানা গোপন রেখেছেন তার মা-বাবা। শুধু তাই নয়, নিজেদের পরিচয়ও প্রকাশে অনিচ্ছুক তাঁরা। ইউটিউবে রায়ানের একটি চ্যানেল রয়েছে। নাম, ‘রায়ান টয়েসরিভিউ’। তার বয়স যখন তিন বছর, তখন থেকেই মা-বাবা তার ভিডিও ওই চ্যানেলে পোস্ট করতে শুরু করেন। এসব ভিডিওর মধ্যে রয়েছে রায়ানের খেলার দৃশ্য, খেলনার নানা দিক নিয়ে তার পর্যালোচনা।

ফোর্বস সাময়িকীর তথ্যমতে, ইউটিউবে আয় করা উদ্যোক্তাদের শীর্ষ তালিকায় রয়েছে কোটিপতি রায়ানের নাম। গত বছরের জুন মাস থেকে চলতি বছরের জুন পর্যন্ত ১ কোটি ১০ লাখ ডলার আয় করে এই তালিকায় সে ৮ নম্বরে রয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়ার লস অ্যাঞ্জেলেসভিত্তিক সংবাদমাধ্যম টিউবফিল্টারকে রায়ানের মা নাম প্রকাশ না করার শর্তে গত বছর বলেছিলেন, তাঁর সন্তান খেলনাবিষয়ক বহু ইউটিউব চ্যানেল দেখত। ‘ইভানটিউবএইচডি’ ও ‘হুলিয়ান মায়া’ নামের দুটি চ্যানেল ছিল তার প্রিয়।

একদিন সে তার মা-বাবাকে বলল, ‘অন্য বাচ্চাদের ভিডিও ইউটিউবে আছে, আমার কেন নেই?’ রায়ানের এই বায়নার পরই তার মা-বাবা সিদ্ধান্ত নেন, সন্তানের খেলার দৃশ্যের ভিডিও তাঁরা ধারণ করে ইউটিউবে পোস্ট করবেন। ২০১৫ সালের মার্চ মাস থেকে যাত্রা শুরু হয় ‘রায়ান টয়েসরিভিউ’র।

সময়ের কণ্ঠস্বর/রবি