ফিলিস্তিনকে স্বাধীন রাষ্ট্রের স্বীকৃতি দেওয়ার আহ্বান জানাবে ওআইসি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক- তুরস্কের ইস্তাম্বুলে আজ অনুষ্ঠেয় ইসলামি সহযোগিতা সংস্থার (ওআইসি) বৈঠকে যেসব দেশ এখনো ফিলিস্তিনকে স্বাধীন রাষ্ট্রের স্বীকৃতি দেয়নি, তাদের প্রতি স্বীকৃতি দেওয়ার আহ্বান জানানো হবে। জেরুজালেমকে ইসরায়েলের রাজধানী হিসেবে যুক্তরাষ্ট্রের স্বীকৃতি দেওয়ার পাল্টা ব্যবস্থা হিসেবে ফিলিস্তিন রাষ্ট্রের স্বীকৃতির ওপর জোর দিচ্ছে ওআইসি।

তুর্কি পররাষ্ট্রমন্ত্রী মেভলুত ক্যাভুসোগ্লু স্থানীয় সময় মঙ্গলবার গণমাধ্যমকে বলেছেন, ‘যেসব দেশ এখনো ফিলিস্তিনকে স্বীকৃতি দেয়নি, তারা যেন এখনই তা দেয়, সেজন্য সবার প্রতি আহ্বান জানানো হবে।’

এদিকে, ইরানের বিপ্লবী রক্ষীবাহিনীর বৈদেশিক অভিযানবিষয়ক কমান্ডার কাসেম সোলেইমানি মঙ্গলবার বলেছেন, ফিলিস্তিনের ‘ইসলামি প্রতিরোধ বাহিনী’-কে সর্বান্তকরণে সহযোগিতা করতে তার দেশ প্রস্তুত রয়েছে। এ ছাড়া মঙ্গলবার ইরানের পার্লামেন্ট যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে বাণিজ্যিক সম্পর্ক কমিয়ে দিতে সব দেশের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে।

অন্যদিকে, সোমবার তুরস্কের আঙ্কারায় দেশটির প্রেসিডেন্ট রিসেপ তায়েপ এরদোয়ানের সঙ্গে বৈঠক শেষ এক যৌথ সংবাদ সম্মেলনে রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন জেরুজালেমকে ইসরায়েলের রাজধানীর স্বীকৃতি দেওয়ায় যুক্তরাষ্ট্রের সমালোচনা করেছেন। তারা একই সুরে বলেছেন, এই পদক্ষেপের কারণে মধ্যপ্রাচ্যে সহিংসতা বেড়ে যাওয়ার আশঙ্কা রয়েছে।

আলজাজিরা অনলাইনের খবরে বলা হয়েছে, ট্রাম্পের ঘোষণার পর ফিলিস্তিনের বিভিন্ন এলাকায় ইসরায়েলি সেনাদের সঙ্গে সংঘর্ষে এরই মধ্যে চার জন নিহত এবং কয়েক দিনের সহিংসতায় ১ হাজার ৭৯৫ জন আহত হয়েছে।

আলজাজিরাকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে প্যালেস্টাইন লিবারেশন অর্গানাইজেশনের (পিএলও) হানান আশরাউই বলেছেন, ফিলিস্তিনি ও ইসরায়েলিদের মধ্যকার শান্তি আলোচনা ‘অপ্রাসঙ্গিক ও গুরুত্বহীন’ করে ফেলেছে যুক্তরাষ্ট্র।

লেবাননের হিজবুল্লাহ গেরিলা গোষ্ঠী ইসরায়েলের বিরুদ্ধে কৌশলগত লড়াইয়ের ঘোষণা দিয়েছে। তারা ফিলিস্তিন ভূখণ্ডে ইসরায়েলবিরোধী প্রতিরোধ গড়ে তুলবে বলে জানিয়েছে।

সোমবার তুর্কি প্রেসিডেন্ট এরদোয়ান বলেন, ইসরায়েল একটি ‘সন্ত্রাসী রাষ্ট্র’। জেরুজামেকে ইসরায়েলের রাজধানীর হিসেবে যুক্তরাষ্ট্রের স্বীকৃতি দেওয়ার ঘটনাকে ‘নিষ্ফল তর্জন-গর্জন’ বলে অভিহিত করেছেন তিনি।