ধর্ষণের অভিযোগে শিক্ষক বরখাস্ত

মো:আনিসুর রহমান,সুন্দরগঞ্জ,(গাইবান্ধা) প্রতিনিধি: গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জ উপজেলায় ছাত্রী ধর্ষণের অভিযোগে গ্রেফতারকৃত ওই শিক্ষককে বরখাস্ত করেছে স্কুল ম্যানেজিং কমিটি। উপজেলার চন্ডিপুর আলহাজ্বল তহুরন্নেছা বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের কম্পিউটার বিষয়ের সহকারি শিক্ষক এএফএম সাজ্জাদুল করিম টিপু পশ্চিম চন্ডিপুর গ্রামের চঞ্চল মাহমুদের কন্যা এবং ওই বিদ্যালয়ের ৯ম শ্রেনির ছাত্রীকে সাজেশন দেয়ার প্রলোভন দেখিয়ে বিদ্যালয়ের শ্রেনিকক্ষে নিয়ে গিয়ে কয়েক দফা ধর্ষণ করে। গত ২৯ নভেম্বর শিক্ষক সাজ্জাদুল করিমের বিরুদ্ধে সভাপতি/প্রধান শিক্ষককের নিকট যৌন হয়রানির বিচার চেয়ে লিখিত আবেদন করেন ছাত্রীর বাবা চঞ্চল মাহমুদ। গত ৭ ডিসেম্বর কমিটির সিদ্ধান্ত মোতাবেক তাকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়।

এক পর্যায়ে ৩ ডিসেম্বর ছাত্রীর বাবা বাদী হয়ে থানায় নারী শিশু নির্যাতন আইনে ওই শিক্ষককের বিরুদ্ধে মামলা করলে পুলিশ ওই দিন সন্ধ্যায় উপজেলা পরিষদ চত্বর হতে শিক্ষক সাজ্জাদুল করিমকে গ্রেফতার করে । বর্তমানে শিক্ষক সাজ্জাদুল করিম জেল হাজতে রয়েছে।
প্রধান শিক্ষক আব্দুর রাজ্জাক জানান,কমিটির সিদ্ধান্ত মোতাবেক গত ৯ ডিসেম্বর শিক্ষক সাজ্জাদুল করিমের নিকট বরখাস্তের চিঠি পাঠানো হয়েছে।

সুন্দরগঞ্জে গণসংহতি আন্দোলনের অফিস উদ্বোধন

গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জ উপজেলায় গণসংহতি আন্দোলনের থানা অফিস উদ্বোধনসহ আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। মঙ্গলবার সন্ধ্যায় উপজেলার হাবলুর মোড়ে সংগঠক হুমায়ুন কবিরের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন, গণসংহতি আন্দোলনের কেন্দ্রিয় কমিটির সদস্য দিপক রায়।

বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ ছাত্র ফেডারেশনের কেন্দ্রিয় সভাপতি গোলাম মোস্তফা। অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন মুজিবুর রহমান, নুর সালাম মিয়া প্রমুখ। এর আগে প্রধান অতিথি ফিতা কেটে গণসংহতি আন্দোলনের সুন্দরগঞ্জ থানা অফিস উদ্বোধন করেন। এখন থেকে সংগঠনটির কার্যক্রম নিয়মিত ভাবে চলতে থাকবে।