শায়েস্তাগঞ্জে গাঁজা উদ্ধার

হবিগঞ্জ প্রতিনিধি: ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের নতুন ব্রীজ মোড় থেকে শায়েস্তাগঞ্জ হাইওয়ে থানা পুলিশ অভিযান চালিয়ে স্কুল ব্যাগ ভর্তি সাড়ে ৩ কেজি গাঁজা উদ্ধার করেছে। মঙ্গলবার দুপুরে শায়েস্তাগঞ্জ হাইওয়ে থানার একদল পুলিশ ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের নতুন ব্রীজ মোড় এলাকায় অভিযান চালায়।

তখন পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে মাদক ব্যবসায়ী গাঁজা ভর্তি ব্যাগ পেলে পালিয়ে যায়। পরে গাঁজা ভর্তি ব্যাগটি উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে পুলিশ।শায়েস্তাগঞ্জ হাইওয়ে থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো: জসিম উদ্দিন খন্দকার এ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে মাদক ব্যবসায়ী পালিয়েছে । দেশকে মাদক মুক্ত করতে আমাদের শায়েস্তাগঞ্জ হাইওয়ে থানার মাদক বিরোধী অভিযান অব্যাহত থাকবে।

হবিগঞ্জে মাহমুদুর রহমানের বিরুদ্ধে মামলা
বাংলাদেশ, বঙ্গবন্ধু, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও টিউলিপ সিদ্দিকের বিরুদ্ধে কটূক্তি করায় আমার দেশ পত্রিকার ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক মাহমুদুর রহমানের বিরুদ্ধে ৫শ কোটি টাকা মানহানী, রাষ্ট্রের সার্বভৌমত্ব ক্ষুন্ন ও রাষ্ট্রদোহের মামলা হয়েছে।বুধবার (১৩ ডিসেম্বর) দুুপুরে হবিগঞ্জ মূখ্য বিচারিক হাকিম এর আদালতে এই মামলা দায়ের করেন হবিগঞ্জ জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি মোস্তফা কামাল আজাদ রাসেল।মামলাটি আমলে নিয়ে হবিগঞ্জ সদর থানার ওসিকে এফআইআর পূর্বক আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশ দেন হবিগঞ্জের মূখ্য বিচারিক হাকিম মোহাম্মদ সোলায়মান ।

মামলার বাদী মস্তোফা কামাল আজাদ রাসেল বলেন, গত ১ ডিসেম্বর জাতীয় প্রেসক্লাব মিলনায়তনে বাংলাদেশ ডেমোক্রেটিক কাউন্সিল (বিডিসি) আয়োজিত একটি মতবিনিময়সভায় মাহমুদুর রহমান কটূক্তি করে বক্তব্য দেন। তিনি বাংলাদেশের স্বাধীনতাকে অস্বীকারসহ দেশকে ভারতের কলোনি হিসেবে আখ্যায়িত করেছেন।

যা রাষ্ট্রদোহের সামিল। তিনি আরও বলেন, তিনি যেহেতু আওয়ামীলীগের রাজনীতির সাথে সম্পৃক্ত তাই শেখ হাসিনা ও টিউলিপ সিদ্দিকের বিরুদ্ধে কটুক্তিতে তিনি মানহানীর অভিযোগ করেছেন।বাদী পক্ষে মামলা পরিচালনা করেন অ্যাডভোকেট নিলাদ্রী শেখর পুরকায়স্থ টিটো, অ্যাডভোকেট সুলতান মাহমুদ ও অ্যাডভোকেট আজিজুর রহমান খান সজল।অ্যাডভোকেট নিলাদ্রী শেখর পুরকায়স্থ টিটো বলেন, আমরা আদালতে ন্যায় বিচার পেয়েছি।

বিচারক শুনানী শেষে প্রমাণ চাইলে আমরা অনুষ্ঠানের স্টিল ছবি, সেই অনুষ্ঠানে মাহমুদুর রহমানের বক্তব্যের ভিডির সিডি আদালতে প্রদান করি। এ সময় বাদীর মোবাইলে রেকর্ডকৃত ভিডিও দেখে এবং পর্যালোচনা করে বিজ্ঞ বিচারক এফআইআর পূর্বক মামলা রুজু করার আদেশ দেন।

হবিগঞ্জে সাংবাদিকদের মৌন মানবববন্ধন

হবিগঞ্জ জেলায় কর্মরত সকল সাংবাদিকের জন্য হবিগঞ্জ প্রেসক্লাব উন্মুক্তকরণ, অসাংবাদিকদের বহিস্কার ও যোগ্যদের মূল্যায়নসহ ৫ দফা দাবিতে মৌন মানববন্ধন করেছেন জেলা সদরে কর্মরত বিভিন্ন প্রিন্ট ও ইলেক্ট্রনিক মিডিয়ায় সাংবাদিকরা।বুধবার (১৩ ডিসেম্বর) বেলা ১১টা থেকে ১২টা পর্যন্ত স্থানীয় নিমতলা প্রাঙ্গণে এ মানববন্ধন কর্মসূচি পালিত হয়। এসময় সাংবাদিকরা মুখে কালো কাপড় বেধে রাখেন।

পরে তারা আগামী ১৮ ডিসেম্বর অবস্থান কর্মসূচির ঘোষণা দেন।সাংবাদিকরা বলেন, গুটি কয়েক সাংবাদিক প্রেসক্লাবকে কুক্ষিগত করে রেখেছেন। যাদের অনেকেই বর্তমানে কোন মিডিয়ায় কর্মরত নেই। এমনকি তারা সাংবাদিকতা পেশায়ও নেই। ফলে প্রেসক্লাব একটি অকার্যকর প্রতিষ্ঠানে পরিণত হয়েছে। যাচাই বাছাই করে তাদেরকে প্রেসক্লাব থেকে বহিষ্কার করে জেলার সাংবাদিকদের জন্য অন্তর্ভূক্ত করতে হবে।

প্রেসক্লাবের কম্পিউটারসহ অন্যান্য সরঞ্জামাদি সাংবাদিকদের ব্যবহারের জন্য উন্মুক্ত করতে হবে।প্রেসক্লাবে বিভিন্ন সময় আর্থিক অনিয়ম হয়েছে বলে সন্দেহ পোষণ করে তারা সরকারিভাবে তা নিরিক্ষা করে জনসম্মুখে প্রকাশের দাবি জানান। এ ক্ষেত্রে আর্থিক অনিয়মের প্রমাণ পাওয়া গেলে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তি বা কমিটির বিরুদ্ধে আইননানুগ ব্যবস্থা নিতে হবে। যথাযথ দেখভাল না থাকায় সরকার প্রদত্ত প্রেসক্লাবের ভূমি পাশর্^বর্তী বাসিন্দারা অবৈধভাবে দখল করে নিয়েছেন। তারা উক্ত ভূমি মাজঝোক করে উদ্ধার করে প্রেসক্লাবকে বুঝিয়ে দেয়ার দাবি জানান।

তারা বলেন, প্রেসক্লাবের তৃতীয় তলা সাংবাদিকদের ব্যবহারের জন্য রেস্ট হাউজ করতে হবে। বাংলাদেশ প্রেস কাউন্সিলের সর্বশেষ নীতিমালা অনুযায়ী সদস্য সংখ্যা বাড়িয়ে গণতান্ত্রিক পন্থায় নির্বাচনের মাধ্যমে কার্যকরি কমিটি গঠন করতে হবে।স্মারকলিপি প্রদান ও মতবিনিময়কালে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন দৈনিক জনকণ্ঠের জেলা প্রতিনিধি রফিকুল হাসান চৌধুরী তুহিন, এটিএন বাংলা’র জেলা প্রতিনিধি আব্দুল হালীম, যমুনা টেলিভিশনের জেলা প্রতিনিধি প্রদীপ দাশ সাগর, একাত্তর টিভি’র জেলা প্রতিনিধি শাকিল চৌধুরী, ডিবিসি বাংলা’র জেলা প্রতিনিধি আব্দুল্লাহ আল মামুন, এসএ টিভি জেলা প্রতিনিধি আব্দুর রউফ সেলিম, বিজয় টিভি প্রতিনিধি মাসুক আলী, ডেইলী ট্রাইব্যুনালের জেলা প্রতিনিধি মোঃ মুজিবুর রহমান, দৈনিক সংবাদের জেলা প্রতিনিধি মোঃ ফয়সল চৌধুরী, দৈনিক আলোকিত বাংলাদেশের জেলা প্রতিনিধি মোঃ মামুন চৌধুরী, সিলেট টুডে জেলা প্রতিনিধি শাকিলা ববি, দৈনিক দিনের শেষে জেলা প্রতিনিধি শাহ কামাল সাগর, দৈনিক প্রভাকরের স্টাফ রিপোর্টার আজহারুল ইসলাম চৌধুরী মুরাদ, দৈনিক বিজয়ের প্রতিধ্বনি’র স্টাফ রিপোর্টার মোহাম্মদ সজলু, দৈনিক হবিগঞ্জের বাণী’র স্টাফ রিপোর্টার সাকিব কায়সার, আব্দুল কাদির প্রমূখ।

এর আগে গত ৩ ডিসেম্বর জেলা প্রশাসক ও পুলিশ সুপার এবং ৯ ডিসেম্বর স্থানীয় সংসদ সদস্যের কাছে এসব দাবিতে স্মারকলিপি প্রদান করা হয়।

শায়েস্তাগঞ্জ প্রেসক্লাবের দ্বি-বার্ষিক সম্মেলন ২৯ ডিসেম্বর

হবিগঞ্জের শায়েস্তাগঞ্জ প্রেসক্লাবের দ্বি-বার্ষিক সম্মেলন ২৯ ডিসেম্বর নির্ধারণ করা হয়েছে।সম্প্রতি প্রেসক্লাব মিলনায়তনে কার্যকরি কমিটির সভা থেকে সম্মেলনের তারিখ ঘোষণা করেন প্রেসক্লাবের সভাপতি মোঃ আব্দুর রকিব।

এছাড়াও ২০১৮-১৯ সেশনের জন্য নতুন কমিটি গঠনে নির্বাচন কমিশন গঠন করা হয় । এতে অধ্যক্ষ মোঃ নাছির উদ্দীনকে প্রধান নির্বাচন কমিশনার ও চুনারুঘাট রিপোর্টার ইউনিটির সাধারণ সম্পাদক আবুল কালাম আজাদ এবং বাহুবল প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক সিদ্দিকুর রহমান মাসুমকে সহকারি নির্বাচন কমিশনার করা হয়েছে।প্রেসক্লাব সূত্র জানায়, প্রেসক্লাবের কার্যকরি কমিটির ১১টি পদে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। এজন্য পদ প্রত্যাশিরা ২১ ডিসেম্বর মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করতে পারবেন। ২৩ ডিসেম্বর মনোনয়নপত্র জমা, বাচাই, চুড়ান্ত তালিকা প্রকাশ করা হবে।

প্রার্থীতা প্রত্যাহার করতে চাইলে ২৪ ডিসেম্বর ও ২৯ ডিসেম্বর সকাল ১১টায় সাধারণ পরিষদের সভা ও বিকাল সোয়া ৩ টায় গোপন ভোটের মাধ্যমে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে ।এর আগে সাধারণ সম্পাদক কামরুজ্জামান আল রিয়াদের পরিচালনায় চলতি সেশনের শেষ কার্যকরি কমিটির সভা অনুষ্ঠিত হয়। এসময় উপস্থিত ছিলেন কার্যকমিটির সদস্য এডভোকেট হুমায়ূন কবীর সৈকত, সমুজ আলী আহমেদ, সহসভাপতি সমিরণ চক্রবর্তী শংকু, যুগ্ম সম্পাদক মঈনুল হাসান রতন, পাঠাগার সম্পাদক কামরুল হাসান ও প্রচার সম্পাদক শামীম চৌধুরী ।