ঠাকুরগাঁওয়ে ট্রেনের টিকিট নিয়ে হামলা, আহত ৫

কামরুল হাসান, ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি: ঠাকুরগাঁও রোড রেল স্টেশনে টিকিট কেনা-বেচাকে কেন্দ্র করে স্টেশন কর্তৃপক্ষের হামলায় অন্তত ৫ যাত্রী আহত হওয়ার ঘটনা ঘটেছে। পরে পুলিশ সহকারী স্টেশন মাস্টার রেহানুল রহমান ও কুলী সর্দার আলী হোসেনকে আটক করে। এ ঘটনার পর বৃহস্পতিবার দুপুর থেকে ঠাকুরগাঁওয়ের সঙ্গে রেল যোগাযোগ বন্ধ রয়েছে দিনাজপুর ও পঞ্চগড় জেলার।

প্রত্যক্ষর্শী ও পুলিশ জানায়, দুপুরে জেলা জজের নাজির বিল্লাল হোসেন ঢাকায় যাওয়ার জন্য ঠাকুরগাঁও রোড রেল স্টেশনে টিকিট কাটতে যায়। এ নিয়ে সহকারী স্টেশন মাস্টার ও কুলীদের সঙ্গে বাকতিবন্ডা হয়। পরে বিল্লাল হোসেনের আরও ৪/৫ জন সহকর্মী স্টেশনে যায়। এ সময় রেল কর্তৃপক্ষ তাদের ওপর হামলা চালায়। এতে করে ৫ জন যাত্রী আহত হয়।

এ ঘটনায় পুলিশ সহকারী স্টেশন মাস্টারসহ দুইজনকে আটক করে। এদিকে, পঞ্চগড় থেকে ছেড়ে আসা কাঞ্চন এক্সপ্রেসটি সিগন্যাল না পেয়ে গন্তব্য স্থলে যেতে পরেনি। ট্রেনটি ঠাকুরগাঁও রোড রেল স্টেশনে পড়ে আছে।

অন্যদিকে, ঠাকুরগাঁও রোড রেল স্টেশনে কোনো ট্রেনও আসতে পারেনি। এতে বিপাকে পড়েছেন যাত্রীরা। যেতে পারছেন না গন্তব্য স্থলে। যাত্রীরা দ্রুত এ সংকটের সমাধান চান। মুঠোফোনে এ বিষয়ে সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (তদন্ত) কফিল উদ্দিনের কাছে আমাদের প্রতিনিধি জানতে চাইলে তিনি জানান, আমারা তাৎক্ষণিকভাবে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষায় ঐ দুজনকে আটক করে ১৫১ ধারায় কোর্টে সপর্দ করি। উভয়ে সরকারী চাকুরিজীবী হওয়ায় কোর্ট তাদের কিছুক্ষণের মধ্যেই ছেড়ে দেন।

এ বিষয়ে জেলা প্রশাসক আব্দুল আওয়াল বলেন, ঘটনাটি অনাকাঙ্খিত তাই দ্রুত সমাধান করা হয়েছে।
এই রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত, ট্রেন চলাচল স্বাভাবিক রয়েছে বলে জানায় রেল কর্তৃপক্ষ।