পাকিস্তানে চার্চে আত্মঘাতী হামলায় নিহত ৭, আহত ১৭

আন্তর্জাতিক ডেস্ক- পাকিস্তানে কোয়েটার জারগুন রোডের বেথেল মেমোরিয়াল চার্চে আত্মঘাতী বোমা হামলা চালানো হয়েছে। এতে কমপক্ষে ৭ জন নিহত ও ১৭ জন আহত হয়েছেন।

রোববার দুপুরের দিকে এ আত্মঘাতী হামলা চালানো হয় বলে জানিয়েছেন বেলুচিস্তান পুলিশের আইজি মোয়াজ্জেম আনসারি।

বিস্ফোরণের পর পুলিশ ও নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যরা জারগুন রোডের ওই এলাকা ঘিরে রেখেছে। ওই চার্চে উদ্ধার অভিযান চলছে। এদিকে ওই আত্মঘাতী হামলার পর নিরাপত্তাবাহিনীর সদস্যদের সঙ্গে জঙ্গিদের গোলাগুলির খবর পাওয়া গেছে।

বেলুচিস্তানের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী মির সরফরাজ বুগতি বলেছেন, প্রাথমিকভাবে আমরা জেনেছি দুইজন আত্মঘাতী হামলাকারী চার্চে প্রবেশ করে। এদের মধ্যে একজনকে গুলি করে হত্যা করা হয়েছে। অন্য আত্মঘাতী হামলাকারী বোমার বিস্ফোরণ ঘটিয়েছে।

তিনি বলেছেন, নিরাপত্তাবাহিনী ও উদ্ধারকর্মীরা আহতদের চিকিৎসা দেয়ার ওপর জোর দিচ্ছে। বুগতি আরো বলেন, ওই হামলাকারীদের কাছে অস্ত্রশস্ত্র ছিল বলে প্রাথমিকভাবে জানতে পেরেছি। ওই হামলার সময় চার্চের ভেতর তিন থেকে চারশ’ লোক ছিল।

এদিকে এই হামলার নিন্দা জানিয়েছেন পাকিস্তানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র মোহাম্মদ ফয়সাল।

এক টুইট বার্তায় তিনি লেখেন, কোয়েটার জারগুন রোডে চার্চ হামলার নিন্দা জানাই। এ ধরনের কাপুরুষোচিত হামলার কারণে সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে লড়াই থেকে সরে আসবে না পাকিস্তান।

এর আগে ২০১৫ সালের ১৫ মার্চে লাহোরের ইউহানাবাদ অঞ্চলের দুইটি গীর্জায় তালেবানদের আত্মঘাতী বোমা হামলায় ১৫ জন লোক নিহত এবং ৭০ জন আহত হন।

সময়ের কণ্ঠস্বর/রবি