মান্দায় জমি সংক্রান্ত বিরোধে মহিলাসহ উভয় পক্ষের ৩ জন জখম

এম এম হারুন আল রশীদ হীরা,মান্দা(নওগাঁ)প্রতিনিধিঃ
নওগাঁর মান্দায় জমি জমা সংক্রান্ত পূর্ব শত্রুতার জের ধরে প্রতিপক্ষের হামলায় রোকসানা বিবি (২৫) ও তার আপন চাচা মঞ্জুরুল ইসলাম প্রামানিক (৫০) নামে ২জন গুরুত্বর জখম হয়েছেন। অপর পক্ষের লুৎফর রহমান (৪৫) নামে একজন আহত হয়েছেন। আহতদেরকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে গতকাল রোববার সকালে উপজেলার কশব ইউনিয়নের কুরিয়াপাড়া গ্রামে।

মান্দা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন মঞ্জুরুল ইসলাম প্রামানিক জানান, তাদের পৌতৃক সূত্রে পাওয়া খতিয়ান নং ৬০ এবং ৪৬৮ দাগে ৪ শতক ধানী জমি রয়েছে। বর্তমানে এ জমি বাড়ি ভিটা হিসেবে ব্যবহার হচ্ছে। উক্ত জমির মধ্যে বাংলা ১৩৫৭ সালে ভাগবাটোয়রামূলে তার ২ শতক অংশের জমিতে ও তার ভাইয়ের স্ত্রী রেবেকার ২শতক জমিতে ভাগ্নে রতনের বাড়ি রয়েছে।

১৩২০ ও ১৩৬২ সালে তাদের পিতা মৃত মহির উদ্দিনের নামে রের্কড হলেও ১৩৭২ সালে ভ’লবশতঃ সৈয়দ আলী কফির নামে রের্কড হয়ে যায়। ফলে ১৩ বছর ধরে ১৪৪ ধারা অনুযায়ী ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে মামলা চলার পর রায় তাদের পক্ষে এলেও প্রতিপক্ষরা জোরপূর্বক দখলের জন্য নানা পাঁয়তারা চালিয়ে আসছিলেন। ঘটনার দিন গতকাল রোববার সকাল সাড়ে ৮টার দিকে হঠাৎ করে জমি জমা সংক্রান্ত পূর্ব শত্রুতার জের ধরে প্রতিপক্ষ লুঃফর রহমানের নেতৃত্বে রুবেল, নাঈম, সেহরাহ, আশরাফ, নার্গিস, লতিফাসহ ১০/১২ জন সন্ত্রাসী কায়দায় দেশীয় অস্ত্র-শস্ত্র নিয়ে অতর্কিত হামলা চালিয়ে তাকে বেদম মারপিট করে।

এসময় তার ভাতিজি রোকসানা বিবি এগিয়ে এলে তাকে বেদম মারপিট করে জখম করে। তবে এসময় প্রতিপক্ষের লুৎফর রহমান ঘটনাটি ভিন্নখাতে প্রবাহিত করতে নিজে আহত হয়ে প্রথমে স্থানীয় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসার জন্য এলেও পরে কৌশলে নওগাঁ সদর হাসপাতালে স্থানান্তর হয়ে ভর্তি হন বলে অভিযোগ করেন তিনি। তবে আহত লুৎফর রহমানের কোন মন্তব্য জানা সম্ভব হয়নি।

মান্দা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আনিছুর রহমান জানান, জমি সংক্রান্ত বিরোধে উভয় পক্ষের ৩ জন আহত হয়েছেন বলে তিনি শুনেছেন। তবে তিনি আরো জানান, গুরুত্বর আহত লুৎফর পক্ষের একটি লিখিত অভিযোগ তিনি পেয়েছেন। যেহেতু ফৌজদারী মামলা রয়েছে। মারপিটের জন্য সাধারাণ ডাইরী করা হবে। তদন্তের জন্য উপপরিদর্শক সুজন খানকে নির্দেশ দেয়া হয়েছে। অপর পক্ষের লিখিত কোন অভিযোগ এখনও পর্যন্ত তিনি পাননি। অভিযোগ পেলে তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।