প্রধানমন্ত্রীর ভাষণ ধোঁয়াশাপূর্ণ: বিএনপি

সময়ের কণ্ঠস্বর- ''আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচন সম্পর্কে প্রধানমন্ত্রী যা বলেছেন তা খুবই অস্পষ্ট, ধোঁয়াশাপূর্ণ এবং বিভ্রান্তিকর। জাতি আশা করেছিল তার প্রধানমন্ত্রীত্বের এ মেয়াদ পূর্ণ হওয়ার এক বছর আগেই তিনি যে ভাষণ দেবেন, সে ভাষণে থাকবে স্পষ্ট দিকনির্দেশনা, জাতীয় সংকট নিরসনে একটি স্পষ্ট রূপরেখা এবং জনগণের উৎকণ্ঠা ও অনিশ্চয়তা দূর করার জন্য থাকবে বিভ্রান্তির বেড়াজালমুক্ত কর্ম পদক্ষেপ।''

জাতির উদ্দেশে প্রধানমন্ত্রীর দেয়া ভাষণের প্রতিক্রিয়া জানাতে শনিবার বিকেলে ডাকা সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

চেয়ারপারসনের গুলশানের রাজনৈতিক কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে মির্জা ফখরু বলেন, সংবিধানে নির্বাচনকালীন সরকার সম্পর্কে স্পষ্ট কোনো বিধান নেই। বিদ্যমান সংবিধান অনুযায়ী যদি সংসদ বহাল রেখে দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়, তাহলে সেই নির্বাচন অবাধ ও সুষ্ঠু হবে না। কারণ সংসদ বহাল থাকা অবস্থায় নির্বাচনকালীন সরকারও হবে বিদ্যমান সরকারের অনুরুপ।

মির্জা ফখরুল বলেন, প্রধানমন্ত্রী যদি আন্তরিকভাবে নির্বাচনকালীন সরকার সম্পর্কে নতুন কিছু ভেবে থাকেন, তাহলে তার উচিত হবে সকল রাজনৈতিক দলের সঙ্গে সংলাপের উদ্যোগ নেয়া। কারণ আমরা মনে করি, একটি আন্তরিক ও হৃদ্যতাপূর্ণ সংলাপের মাধ্যমে ২০১৮ সালের নির্বাচন নিয়ে অর্থবহ সমাধানে আসা সম্ভব।

নির্বাচনকালীন সরকার নিয়ে একটি প্রস্তাবনা দেয়ার ইঙ্গিত করে তিনি বলেন, নির্বাচনকালীন সরকারের রুপরেখা কেমন হতে পারে তা নিয়ে আমাদের দলের একটি চিন্তা-ভাবনা আছে। কেননা একটি সুন্দর পরিবেশে সংলাপ অনুষ্ঠিত হলে জাতির মনে যে অনিশ্চিয়তা বিরাজ করছে তা কাটিয়ে ওঠা সম্ভব হবে বলে আমরা আস্থা রাখতে চাই।

রবি