মাংসের বদলে মেনুতে রাখুন মাশরুম

লাইফস্টাইল ডেস্কঃ

শরীর সুস্থ রাখতে ভারি ব্রেকফাস্টের পরামর্শ দেন বিশেষজ্ঞরা। আর সেই মেনুতে যদি মাশরুম থাকে তবে তো কথাই নেই। অনেক ক্ষেত্রে মাংসের বদলেও মাশরুম রাখার পরামর্শ দেওয়া হচ্ছে। খিদে মেটানো থেকে শুরু করে একাধিক ফল মিলবে হাতেনাতেই।

সম্প্রতি এক জার্নালে এ নিয়ে সমীক্ষার ফলাফল প্রকাশিত হয়েছে। যেখানে দেখা যাচ্ছে, মাশরুম খাওয়ার উপকারিতা কম নয়। বরং অন্যান্য খাবারের থেকে বেশি। এখন মাশরুম যে উপকারি তা নতুন করে বলার অপেক্ষা রাখে না। তাহলে ঠিক কোন ক্ষেত্রে এটি কার্যকরী? সমীক্ষা অনুযায়ী, কোনো কোনো ক্ষেত্রে মাংসের বদলে মাশরুম বেশি কার্যকরী হয়ে ওঠে। এমনকি মিলে মাংসের পরিবর্তে বদল করে মাশরুম রাখলেও খুব ক্ষতি হবে না। তাতে পুষ্টিগত ফলও মিলবে, অন্যদিকে খাওয়ায় পূর্ণতা বা তৃপ্তির ভাবও আসে বেশি। ফলে বারবার খেয়ে অতিরিক্ত ক্যালরি গেন না করার সম্ভাবনা বেশি থাকে। যাতে আখেরে লাভবান হয়ে ওঠা যায়। তাই ব্রেকফাস্টে মাশরুম যুক্ত খাবার রাখার পরামর্শ দিচ্ছেন ডায়েটিশিয়ানরা।

খাওয়ায় পূর্ণতা দেওয়ার ক্ষেত্রে বড় ভূমিকা নেয় প্রোটিন। মাংস খেয়ে এই পূর্ণতা কতটা আসে, আর কতটা মাশরুম খেয়ে, তা নিয়েই চালানো হয়েছিল সমীক্ষা। খাদ্যে পাওয়া প্রোটিনের নিরিখে মাংস ও মাশরুম তুল্যমূল্য একই জায়গায়। তাই এই দুটি খাবারকেই বেছে নেওযা হয়। বেশ কয়েকজনকের দশ দিনের খাদ্যাভাসের সমীক্ষা করা হয়। এক শ্রেণিকে দেওয়া মাশরুম যুক্ত ব্রেকফাস্ট। অন্যদের দেওয়া হয় মাশরুম যুক্ত খাবার। প্রোটিন গ্রহণের নিরিখে দুটো ক্ষেত্রে বিশেষ কোনো ফারাক থাকার কথা নয়। কিন্তু কার্যত দেখা যায়, বেশ ভালোই ফারাক দেখা দিচ্ছে। দিন দশ পরে মাশরুম যুক্ত ব্রেকফাস্ট যারা খেয়েছেন, তাদের থেকেই ভালো রিপোর্ট মেলেছে। পূর্ণতার বা তৃপ্তিতে তারাই এগিয়ে। মাশরুমযুক্ত ব্রেকফাস্ট খাওয়ায় খিদে তো মিটেইছে। অন্যদিকে তৃপ্তিও বেশি। এই সমীক্ষা থেকেই বিশেষজ্ঞদের পরামর্শ, অনেক খাবারের ক্ষেত্রেই মাংসের বদলে মাশরুম রাখা যেতে পারে।