পরীক্ষাগারে গজাল কানহীন জন্ম নেয়া ‌৫ শিশুর কান!

নিউজ ডেস্কঃ

জন্মের পর থেকেই একটি কান নিয়ে সমস্যায় ছিল শিশুটির। একটি কান থাকলেও আর একটি কান ছিল না বললেই চলে। কী হবে ভেবে কুলকিনারা করতে পাচ্ছিলেন না তার মা-বাবা। শেষে চিকিৎসকদের পরামর্শে দুঃসাহসিক পদক্ষেপ নেন তারা।

ছেলের কান পেতে শেষে হাসপাতালের এক চিকিৎসকের সাহায্যে এক গবেষকের সঙ্গে যোগাযোগ করেন তারা। তারপরে কী ঘটল জানলে অবাক হয়ে যাবেন। তিন মাসের মধ্যে শিশুর শরীরে জায়গা করে নিল আস্ত একটি কান।

কীভাবে সম্ভব? এই অসাধ্য সাধন করেছেন চীনের একদল গবেষক। শিশুর যে কানটি অপুষ্ট ছিল সেখান থেকে কোষ সংগ্রহ করেন তারা। পরীক্ষাগারে শিশুর বয়স অনুযায়ী নকল কানের একটি ছাঁচ তৈরি করেন তারা।

তাতে শিশুর অপুষ্টকানের কোষ রেখে তার সঙ্গে রাসায়নিক বিক্রিয়া ঘটান গবেষক দল, যাকে বলে মাইক্রোশিয়া। সেই মাইক্রোশিয়ার সাহায্যেই জীবিত কোষ থেকে ধীরে ধীরে গঠিত হয় একটি পূর্ণাঙ্গ কান।

তারপর সেটি অপারেশন করে শিশুর অপুষ্ট কানের অংশে প্রতিস্থাপিত করেন চিকিৎসকরা। শুধু একজন নয়, এরকমভাবে প্রায় ৫টি শিশুর কান পরীক্ষাগারে গজিয়েছেন গবেষকরা।

তারপর সেই কানগুলো অস্ত্রোপচার করে বসানো হয়। এখন একেবারে স্বাভাবিকভাবেই বয়সের সঙ্গে সঙ্গে বৃদ্ধি পাবে তাদের কান।

সময়ের কণ্ঠস্বর/বাদল

Leave a Reply