তিন মামলায় ‘শ্যোন অ্যারেস্ট’ হচ্ছেন খালেদা জিয়া

সময়ের কণ্ঠস্বর ডেস্ক- জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলায় কারাবন্দি বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে এবার কুমিল্লায় নাশকতার ঘটনায় দায়ের করা তিন মামলায় ‘শ্যোন অ্যারেস্ট’ দেখানো হচ্ছে।

এরই মধ্যে এসব মামলার গ্রেফতারি পরোয়ানা কুমিল্লা থেকে ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) কাছে পাঠানো হয়েছে বলে জানিয়েছেন কুমিল্লা জেলা পুলিশ সুপার মো. শাহ আবিদ হোসেন।

তিনি বলেন, ২০১৫ সালের জানুয়ারি ও ফেব্রুয়ারিতে কুমিল্লার চৌদ্দগ্রামে নাশকতার ঘটনায় খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে দায়ের করা মামলাগুলোর সকল নথিপত্র ঢাকায় পাঠিয়ে দেয়া হয়েছে।

২০১৫ সালের জানুয়ারি ও ফেব্রুয়ারিতে কুমিল্লার চৌদ্দগ্রামে নাশকতার ঘটনায় তিনটি মামলা দায়ের করা হয়েছিল। অন্যান্যের সঙ্গে এ মামলায় খালেদা জিয়াসহ বিএনপির সাত শীর্ষ নেতা হুকুমের আসামি ছিলেন।

২০১৭ সালের পৃথক সময় ও গত জানুয়ারিতে খালেদা জিয়াসহ অন্য আসামিদের বিরুদ্ধে এ মামলায় গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেন কুমিল্লার আমলি আদালত। জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলার রায়ের পর নতুন রাজনৈতিক প্রেক্ষাপটে খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে তিন মামলায় পরোয়ানা ঢাকায় পাঠানো হলো।

গত বৃহস্পতিবার জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলায় খালেদা জিয়ার পাঁচ বছরের কারাদণ্ড হওয়ার পর তিনি নাজিমুদ্দিন রোডের সাবেক কেন্দ্রীয় কারাগারে রয়েছেন। এরই মধ্যে এ মামলায় খালেদা জিয়ার আইনজীবীরা তার আপিল ও জামিন আবেদনের প্রস্তুতি নিচ্ছেন।

তবে নাশকতার তিন মামলায় গ্রেফতার দেখানো হলে জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলায় জামিন পেলেও তার কারামুক্তির বিষয়টি বিলম্বিত হতে পারে বলে মনে করছেন সংশ্নিষ্টরা। সে ক্ষেত্রে দ্রুত কারামুক্তি পেতে হলে কুমিল্লার তিন মামলায়ও বিএনপি চেয়ারপারসনকে জামিন পেতে হবে। এদিকে, গতকাল খালেদা জিয়ার পাঁচ আইনজীবী কারাগারে গিয়ে তার সঙ্গে সাক্ষাৎ করেছেন। আইনি ব্যাপারে তারা খালেদা জিয়ার পরামর্শও নিয়েছেন।

জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলায় কারাদণ্ড হওয়ার পর খালেদা জিয়ার কারাজীবন দীর্ঘায়িত হচ্ছে, নাকি দ্রুত তিনি জামিন পাচ্ছেন- এ নিয়ে বিএনপির ভেতরে শঙ্কার সৃষ্টি হয়েছে। নেত্রীকে মুক্ত করতে বিএনপি আপাতত আইনিভাবে পরিস্থিতি মোকাবেলা করতে চায়। একই সঙ্গে রাজপথে নানা কর্মসূচিও চালিয়ে যেতে চান তারা।

রবি