নকল ধরায় কেন্দ্রে পরীক্ষার্থীর আত্মহত্যার চেষ্টা

নিজস্ব প্রতিবেদক, সাভার- সাভারে ফাঁস হওয়া প্রশ্নের উত্তর হাতে লিখে নিয়ে পরীক্ষা দেওয়ার সময় ধরা পরায় এক পরীক্ষার্থীকে বহিষ্কার করা হয়। এসময় ওই শিক্ষার্থী দোতলা থেকে লাফিয়ে পড়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করে।

মঙ্গলবার দুপুরে সাভার অধরচন্দ্র উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রে পদার্থ বিজ্ঞান পরীক্ষা চালাকালে এ ঘটনা ঘটে। পরে তাকে গুরুতর আহতাবস্থায় উদ্ধার করে প্রথমে সাভার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও পরে ঢাকার পঙ্গু হাসপাতালে হস্তান্তর করা হয়। ওই ছাত্রী সাভার ব্যাংক কলোনির বাসিন্দা।

তার মা বলেন, পরীক্ষা কেন্দ্রে তার মেয়েকে বহিষ্কার করায় সে আত্মহত্যার চেষ্টা করে। এ সময় তার দুই পায়ের কয়েকটি হাড় ভেঙে গেছে। পরে উন্নত চিকিৎসার জন্য দুপুরে তাকে রাজধানীর পঙ্গু হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

শিক্ষার্থীরা জানায়, সাভার উচ্চ বালিকা বিদ্যালয়ের ওই এসএসসি পরীক্ষার্থী মঙ্গলবার পদার্থবিজ্ঞান পরীক্ষা দিচ্ছিল। সে বাড়ি থেকে পদার্থবিজ্ঞানের ফাঁস হওয়া প্রশ্নপত্র পেয়ে তার উত্তর বাম হাতে লিখে নিয়ে আসে। কেন্দ্রে এসে তা দেখে লেখার সময় উপজেলা নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের প্রতিনিধি কেন্দ্রের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মেজবাহ উদ্দিন তা দেখে ফেলেন।

তিনি ওই ছাত্রীর খাতা নিয়ে নেন। পরে ওই ছাত্রী অনেক কাকুতি-মিনতি করেও আর পরীক্ষা না দিতে পারায় স্কুলের দোতলার ছাদ থেকে লাফ দিয়ে মাটিতে পড়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করে। পরে স্কুল কর্তৃপক্ষ আশঙ্কাজনক অবস্থায় ওই ছাত্রীকে উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য সাভার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে।

পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক হিসেবে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের প্রতিনিধি হিসেবে দায়িত্বে থাকা উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা মেজবাহ উদ্দিন জানান, মেয়েটির হাতে হাতে লিখে নিয়ে আসা ২৫টি প্রশ্নের উত্তর হুবহ মিলে যাওয়াতেই তার সন্দেহ হয়েছিল।

সময়ের কণ্ঠস্বর/রবি

Leave a Reply