'প্রেমবঞ্চিত' শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ!

রাজশাহী প্রতিনিধি: বিশ্ব ভালোবাসা দিবেসে সবাই যখন ভালোবাসার মানুষটিকে সঙ্গে নিয়ে আনন্দ-উল্লাসে দিন পার করছেন তখন তাদের আনন্দ-উল্লাস দেখে ক্ষোভ ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ‘প্রেমবঞ্চিত’ শিক্ষার্থীরা।

প্রেমবঞ্চিত সংঘ’র ব্যানারে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রায় কয়েক শতাধিক শিক্ষার্থী এ কর্মসূচিতে অংশগ্রহণ করেন।

বুধবার বেলা ১১টা। রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের টুকিটাকি চত্বর থেকে ৫০ থেকে ৬০ জন তরুণ একটি মিছিল নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের ইসমাইল হোসেন সিরাজী ভবনের দিকে এগিয়ে আসছে। মিছিলে তাদের ব্যানারে লেখা ‘প্রেম বঞ্চিত সংঘ’! সবার কণ্ঠে স্লোগান।

মিছিলের দিকে তাকিয়ে আশপাশের সবাই হাসছে! কেউ আবার দৌঁড়ে এসে মিছিলে যোগ দিচ্ছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের পশ্চিমপাড়া ঘুরে মিছিলটি প্যারিস রোডে পৌঁছাতেই শিক্ষার্থীদের অংশগ্রহণে মিছিলে লোকসংখ্যা প্রায় চারশতে পৌঁছায়।

মিছিলটি ক্যাম্পাসের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে একই স্থানে গিয়ে শেষ হয়। পরে সেখানে তারা এক সংক্ষিপ্ত সমাবেশে অংশ নেয়। মিছিলে অংশগ্রহণকারীরা ‘কেউ পাবে, কেউ পাবে না, তা হবে না, তা হবে না’, ‘প্রেমের নামে প্রহসন বন্ধ কর’ এ রকম নানা হাস্যরসাত্মক স্লোগানে পুরো ক্যাম্পাস মাতিয়ে তুলে।

সমাবেশে প্রেম বঞ্চিত সংঘের সদস্যরা বক্তব্য দিতে গিয়ে অভিযোগ করে বলেন, কিছু তরুণ-তরুণী ও যুবক-যুবতী একই সঙ্গে তিন-চারটি প্রেমের সম্পর্ক করছেন। ছেলেরা মেয়েদের প্রেমের ফাঁদে ফেলে ধোঁকা দিচ্ছে। তবু মেয়েরা বুঝতে পারছে না। কিন্তু সত্যিকার প্রেমিক হিসেবে তারা পছন্দের মেয়েদের প্রেমের পয়গাম নিয়ে গেলে কোনো কিছু না ভেবে, না বুঝেই মেয়েরা প্রত্যাখ্যান করে দিচ্ছে।

তারা আরো অভিযোগ করে বলেন, পারিবারিক অস্বচ্ছলতার কারণে তাদের মোটরসাইকেল না থাকায় এবং মেয়েদের পেছনে সাধ্যমতো অর্থ ব্যয় করতে সমর্থ না হওয়ায়, স্নাতক শেষের পথেও তারা আজ প্রেম বঞ্চিত।

তাদের দাবি, প্রেম মৌল মানবিক চাহিদা। প্রেমের ক্ষেত্রে সবার অধিকার সমান হওয়া উচিত। এটা বোঝার জন্য সব মেয়ের প্রতি আহ্বান জানায় তারা।

সময়ের কণ্ঠস্বর/রবি

Leave a Reply