বৃদ্ধ বাবাকে বঁটির কোপ, গ্রেপ্তার ছেলে

আন্তর্জাতিক ডেস্ক- মদ্যপ ছেলের বঁটির কোপে গুরুতর জখম হলেন বাবা নীলরতন দত্ত। অভিযোগ,শুধু কোপ মারাই নয়। তারপর আহত নীলরতনবাবুকে শৌচাগারেও বন্ধ করে রাখা হয়। খবর সংবাদ প্রতিদিন কলকাতা

স্বামীকে এভাবে অত্যাচিরত হতে দেখে চুপ করে থাকেননি নীলরতনবাবুর স্ত্রী। নিজেই থানায় ফোন করে ছেলের গুণকীর্তনের খবর জানান। কিছুক্ষণের মধ্যেই ঘটনাস্থলে পৌঁছয় চেতলা থানার পুলিশ । গ্রেপ্তার করা হয় অভিযুক্ত ছেলেকে। বুধবার রাতে ঘটনাটি ঘটেছে দক্ষিণ কলকাতার চেতলায়।

পুলিশ জানিয়েছে, অভিযুক্তের নাম রজত দত্ত। মদ্যপ অবস্থায় বাবা মায়ের উপরে প্রায়ই চড়াও হত সে । চলত মারধর। প্রতিরাতেই মদ্যপ অবস্থাতেই বাড়ি ফেরে। এদিনও তার ব্যতিক্রম হয়নি। বাড়ি ফিরেই বৃদ্ধ বাবার পায়ে বঁটির কোপ বসিয়ে দেয়। তারপর জোর করে বাড়ির শৌচাগারে বন্দি করে রাখে। ছেলের অত্যাচারে অতিষ্ট হয়ে চেঁচামেচি শুরু করেন আক্রান্ত বৃদ্ধের স্ত্রী। সেই শুনেই প্রতিবেশীরা ছুটে আসেন। অভিযুক্ত রজতকে আটকে রাখা হয়। ঘটনাস্থলে পৌঁছয় পুলিশ।এরপর অভিযুক্তকে পুলিশের হাতে তুলে দেয় প্রতিবেশীরা।

বঁটির কোপে গুরুতর আহত নীলরতনবাবুকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। পায়ে মারাত্মক চোট পেয়েছেন তিনি।

সময়ের কণ্ঠস্বর/ফয়সাল