SOMOYERKONTHOSOR

অবৈধ সম্পর্ক টিকিয়ে রাখতে চার বছরের সন্তানকে ‘পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ’ মায়ের বিরুদ্ধে!

চিত্র বিচিত্র ডেস্ক-
বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্কে হয়তো বাধা হয়েই দাঁড়িয়েছিল চার বছরের নিস্পাপ ছেলে। অবৈধ সেই সম্পর্ক টিকিয়ে রাখতে এবার নিজের সন্তানকেই পিটিয়ে খুন করার অভিযোগ উঠেছে গর্ভধারিনি এক নিষ্ঠুর মায়ের বিরুদ্ধে। এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে শনিবার চরম উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়েছে উত্তর ২৪ পরগনার দেগঙ্গায়।

অবিশ্বাস্য হলেও অমানবিক সত্যি এই ঘটনার সাক্ষি হলো দেগঙ্গার হরেকৃষ্ণ কলোনি এলাকার বাসিন্দা সমীর সর্দারের স্ত্রী টুম্পা সর্দার। দম্পতির দুই পুত্রসন্তান রয়েছে। অভিযোগ, এলাকারই এক যুবকের সঙ্গে বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্কে জড়িয়ে পড়ে টুম্পা। তারপরই ছোট ছেলেকে নিয়ে বাড়ি থেকে পালিয়ে যায় সে। স্বামী সমীর সর্দার ও বড় ছেলেকে ছেড়ে গোলাবাড়ি এলাকায় ইটভাটায় প্রেমিকের সঙ্গে থাকতে শুরু করে টুম্পা।

শুক্রবার রাতে ইট ভাটার মালিক সমীর সর্দারের বাড়ি ফোন করে জানান, জ্বরে আক্রান্ত হয়ে তাঁর চার বছরের ছেলের মৃত্যু হয়েছে। রাতেই মৃত শিশুর দেহ সমীর সর্দারের বাড়িতে নিয়ে আসা হয়। সমীর সর্দারের বাড়ির লোকরা অভিযোগ করেন, শিশুর সারা শরীরে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। তাকে পিটিয়ে খুন করা হয়েছে বলেই দাবি করেন তাঁরা।
তবে ছোত ছেলেকে নিয়ে পালিয়ে যাবার পর ঠিক কি কারনে সন্তানকে এমন নির্মম কায়দায় খুন করতে পারে তার সুনির্দিস্ট ব্যখ্যা মেলেনি এখন অবধি।

এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে এদিন সকাল থেকেই উত্তপ্ত হয়ে ওঠে দেগঙ্গা। অভিযুক্ত টুম্পা সর্দার ও তার প্রেমিককে বেধড়ক মারধর করেন স্থানীয় বাসিন্দারা। পুলিশ শিশুর দেহ উদ্ধারে গেলে পরিস্থিতি আরও উত্তপ্ত হয়ে ওঠে। পুলিসের সঙ্গে ধ্বস্তাধ্বস্তি বেঁধে যায় গ্রামবাসীদের। কোনওমতে ক্ষিপ্ত জনতার হাত থেকে অভিযুক্তদের উদ্ধার করে থানায় সোপর্দ করে পুলিশ।