রাতগভীরে প্রেমিকসহ ঘটক স্বামীকে গলা কেটে নির্মম হত্যা করেছে স্ত্রী !

কুষ্টিয়া প্রতিনিধি-
কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে কুদরত আলী (৪০) নামে এক ঘটককে গলা কেটে হত্যা করা হয়েছে। রোববার সকালে উপজেলার তারাগুনিয়া শালিমপুর ডাকবাংলার পেছনের বাগান থেকে ওই ঘটকের মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

কুদরত আলী খলিশাকুন্ডি এলাকার পরেস মন্ডলের ছেলে। এ ঘটনায় নিহতের স্ত্রী মাছুরা খাতুনকে (২৫) আটক করেছে পুলিশ।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, দির্ঘদিনধরেই এই পরকিয়ার ঘটনা নিয়ে বিরোধ চলছিলো পরিবারে। স্ত্রী মাছুরা খাতুনের পরকীয়ার জেরে শনিবার গভীর রাতে নিজ ঘরে ঘটক কুদরত আলীকে স্ত্রী ও তার প্রেমিক সহ ধারালো অন্ত্র দিয়ে নির্মমভাবে গলা কেটে হত্যা করে তার মরদেহ বাড়ির পার্শ্ববর্তী বাগানের মধ্যে ফেলে রাখে। রোববার সকালে স্থানীয়রা নিহতের মরদেহ ঘটনাস্থলে পড়ে থাকতে দেখে পুলিশকে খবর দেয়। খবর পেয়ে পুলিশ মরদেহটি উদ্ধার করে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করে। এ ঘটনায় মাছুরা খাতুনকে আটক করেছে পুলিশ।

প্রাথমিক তদন্তের বরাত দিয়ে দৌলতপুর থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) শাহাদত হোসেন সময়ের কণ্ঠস্বরকে জানান, স্ত্রীর পরকীয়া প্রেমের জের ধরে কুদরত আলী ঘটককে হত্যা করা হয়েছে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে। এ ঘটনায় স্ত্রী মাছুরা খাতুনকে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।

Leave a Reply