সোনাইমুড়ীতে নোয়াখালী জেলা ইজতেমায় লাখো মুসল্লির ঢল

মো:ইমাম উদ্দিন সুমন, স্টাফ রিপোর্টার: নোয়াখালী জেলা ইজতেমায় জুমুয়ার নামাজে লাখো মুসল্লির ঢল নামে। বৃহস্পতিবার থেকে শুরু হওয়া ৩ দিন ব্যাপী এ স্থানীয় ইজতেমা আগামীকাল শনিবার শেষ হবে।

সোনাইমুড়ী উপজেলা কমপ্লেক্স ভবন সংলগ্ন বগাদিয়া-ভানুয়াই মাঠে নোয়াখালী জেলা ইজতেমার আখেরি মোনাজাত শনিবার সকাল ১১ টা থেকে ১২টার মধ্যে অনুষ্ঠিত হবে । মোতাজাাতে যোগ দেওয়ার জন্য নোয়াখালীর সকল উপজেলার মুসল্লিদের সাথে দেশী-বিদেশী মুসল্লিদের সমাগম ঘটেছে।

শুক্রবার জুমুয়ার নামাজে প্রায় ৩ লাখ মুসল্লি নামাজ আদায় করেন। এ সময় মূল প্যান্ডেল ছাড়িয়ে ঢাকা-নোয়াখালী মহাসড়ক সহ আশপাশে মুসল্লিদের নামাজ পড়তে দেখা যায়। নামাজে অংশ গ্রহণ করার জন্য দূরদূরান্ত থেকে মুসল্লিরা ছুটে আসে। নামাজ শেষে মহাসড়কে ব্যাপক যানযট সৃষ্টি।

সোনাইমুড়ীতে নোয়াখালী জেলা ইজতেমা মাঠ ৩৫ একর জায়গা নিয়ে আয়োজন করা হয়েছে। এতে নোয়াখালী ছাড়াও দেশ-বিদেশের প্রায় ৪ থেকে ৫ লাখ ধর্মপ্রাণ মুসলমান অংশ গ্রহণ করবেন বলে ধারনা করা হচ্ছে। ২২ ফেব্রুয়ারী বৃহম্পতিবার বাদ ফজর আমবয়ানের মধ্যদিয়ে ইজতেমার কার্যক্রম শুরু হয়। কাকরাইল মসজিদের শীর্ষস্থানীয় মুরুব্বি ্ও জেলা-উপজেলার আলেমগণ ইজতেমায় ইমান,নামাজ, ইলম্, জিকির, ইকরামুল মুসলিমীন, তাস্হীহনিয়ত ও তাবলীগের সমস্ত বিষয়বস্তু নিয়ে আলোচনা করেন ।

নোয়াখালী জেলা মারকাজের উদ্যোগে আয়োজিত ইজতেমায় আখেরী মোনাজাত পরিচালনা করবেন কাকরাইল মসজিদের শীর্ষস্থানীয় মুরুব্বি হাফেজ মাওঃ জোবায়ের আহমেদ।

এ বিষয়ে দায়িত্বে থাকা ইঞ্জিনিয়ার ডিএম সাইফুল্যাহ জানান, এর আগে নোয়াখালী জেলা ইজতেমা সুবর্ণচর উপজেলার আলী বাজার ও সেন্টার বাজারে ২বার হয়েছে সেখানে ১/২ লাখ লোকের সমাগম হয়েছে। ৩য় বার জেলা ইজতেমা সোনাইমুড়ী উপজেলায় হচ্ছে। এখানে প্যান্ডেলের ভিতরে প্রায় ২ লাখ লোক বসতে পারবে, যোগাযোগ ব্যবস্থা উন্নত হওয়ায় প্যান্ডেলের বাহিরেসহ ৪/৫ লাখ লোকের সমাগম হবে বলে আশা করি।

Leave a Reply