SOMOYERKONTHOSOR

বউ পেটানোর গুজবে ফেসবুক স্ট্যাটাসে যা বললেন তাসকিন

স্পোর্টস আপডেট ডেস্ক- দেশে ব্যাঙের ছাতার মত গজিয়ে উঠেছে বিভিন্ন নামসর্বস্ব অনলাইন পোর্টাল। এসব পোর্টালের মূখ্য উদ্দেশ্যই থাকে তারকাদের সম্পর্কে মুখরোচক গুজব ছড়িয়ে সস্তা জনপ্রিয়তা অর্জন করা। তাদের এমন গুজব ছড়ানোর সর্বশেষ তালিকায় যুক্ত হয়েছেন বাংলাদেশ জাতীয় দলের তারকা ক্রিকেটার তাসকিন আহমেদ।

গত বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা থেকেই কয়েকটা অনলাইন পোর্টালে ছড়িয়ে পড়ে ‘এবার বউ পেটালেন তাসকিন’ ‘তাসকিনের বিরুদ্ধে বউ পেটানোর অভিযোগ’ এমন শিরোনামের সংবাদ। দক্ষিণ আফ্রিকা সফর থেকে এসেই হুট করে বিয়ের সিদ্ধান্ত ও তাসকিন জাতীয় দলের বাহিরে থাকায় গুজবের ডালপালা মেলতে থাকে।

প্রথমে গুরুত্ব না দিলেও নিজের পরিবারের কথা চিন্তা করে ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করে সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যম ফেসবুকে একটি স্ট্যাটাস দিয়েছেন বাংলাদেশ ক্রিকেটের উজ্জ্বল নক্ষত্র তাসকিন আহমেদ।

শুক্রবার সন্ধ্যায় দেওয়া স্ট্যাটাসে বাংলাদেশি এই ফার্স্ট বোলার লেখেন, একটা বিষয় আমাকে এবং আমার পরিবারকে খুব মর্মাহত করেছে। আপনাদের দোয়ায় আমি ও আমার সহধর্মিনী নাঈমা ভালো আছি। আর এভাবেই ভালো থাকতে চাই আপনাদের দোয়ায়।

তিনি আরো লেখেন, গণমাধ্যম আমাকে সবসময় সহযোগিতা করেছে এজন্য আমি কৃতজ্ঞ। জাতীয় দলের বাইরে থাকায় আমার মন স্বাভাবিকভাবেই কিছুটা খারাপ; জাতীয় দলে ফিরতে যখন আমি নিজের পারফরমেন্স নিয়ে চিন্তিত, তখন কোনো এক গণমাধ্যম আমার এবং নাঈমার সংসার জীবন নিয়ে নেতিবাচক মিথ্যা বানোয়াট সংবাদ প্রচার করছে। যে কারণে আমার পরিবারকে হেয় প্রতিপন্ন হতে হচ্ছে সমাজের কাছে।

দয়া করে আমার এবং আমার পরিবার কে বুঝবেন। সবার কাছে আমার চাওয়া আপনারা সবাই আমার জন্য দোয়া করবেন যেন সকল প্রতিবন্ধকতা পেরিয়ে আবার জাতীয় দলে ফিরে আসতে পারি বলেও স্ট্যাটাসে উল্লেখ করেন তিনি।

স্ট্যাটাসটি দেওয়ার চার ঘণ্টার মাথায় সাত হাজার লাইক পড়ে এবং চারশ জন কমেন্ট করেন। সেখানে কমেন্টে একজন লেখেন, আমি নিশ্চিত ছিলাম যে, ওটা ভুয়া সংবাদ। এসব গুজবে কান দিও না তাসকিন। তোমার খেলার প্রতি মনোযোগী হও। আমার বিশ্বাস শিগগিরই খুব ভালোভাবে ফিরে আসবে তুমি।

আরেকজন লেখেন, কেবল খেলার প্রতি নজর দাও। কে কী বললো সেটা দেখার দরকার নেই। শুভ কামনা রইলো।

প্রসঙ্গত, তাসকিনের স্ত্রী রাবেয়া আমেরিকান ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশের (এআইইউবি) অর্থনীতি বিভাগের স্নাতক শিক্ষার্থী। জাতীয় দলের পেস সেনসেশনও পড়ছেন একই বিশ্ববিদ্যালয়ে। দীর্ঘ দিনের প্রেমের সম্পর্ক ছিল তাদের মধ্যে। গতবছরের ৩১ অক্টোবর মোহাম্মদপুরের একটি কমিউনিটি সেন্টারে বিয়ে হয় তাসকিন-নাঈমার।

সময়ের কণ্ঠস্বর/রবি