SOMOYERKONTHOSOR

শিশুকাল থে‌কেই মা-বাবাকে খুঁজছে সুরাইয়া!!

শরীয়তপুর প্র‌তি‌নি‌ধি:মেয়েটির নাম সুমাইয়া আক্তার সুরাইয়া (১৮)। শিশু বয়‌সে মা-বাবার সা‌থে ঢাকায় গি‌য়ে হা‌রি‌য়ে যায় সে। এরপর থে‌কে স্বজন‌দের খুঁজ‌ছেন সে ।

১২বছরেও সন্ধান না মেলায় গতকাল শুক্রবার বাবা-মা ও পরিবারের খোঁজে ব‌রিশা‌লের মুলাদী থে‌কে পা‌লি‌য়ে শরীয়তপুরের পালং ম‌ডেল থানায় ছু‌টে আসে সুরাইয়া। সে শুধু তার বাবা সলেমান মীর, মা জলেফা বেগম (ফাতেমা) নাম বলতে পারলেও বাড়ির ঠিকানা কিছুই বল‌তে পা‌রে না। শ‌নিবার বিকা‌লে পু‌লিশ অাদাল‌তের মাধ্য‌মে তা‌কে ফ‌রিদপু‌রের ‌সেইফ কাষ্টরিতে প্রেরণ করা হ‌য়ে‌ছে ।

সুরাইয়া জানায়, বয়স যখন ৬ বছর। তখন বাবা-মা‌য়ের সা‌থে (২০০৬) ঢাকার মিরপুরে বেড়াতে গিয়ে হারিয়ে যায়। পরে বাবা-মাকে অার খুঁজে না পেয়ে ঢাকার সদরঘাটে এ‌সে লঞ্চে উঠ‌লে বরিশালের মুলাদী লঞ্চঘাটে নামিয়ে দেয়।
নামার প‌রে সেখা‌নে হারুন খান নামে একজ‌নের সা‌থে প‌রিচয় হ‌লে সে বাসায় নিয়ে যায়। ‌সেখা‌নে আট মাস থাকার পরে হারুন না‌মে ওই আংকেল বরিশালের হিজলার ভূয়াবাড়িয়া ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ডের পানিভাঙা গ্রামের কামরুল উদ্দিন হাজারীর ছেলে দেলোয়ার হোসেন বাদশা হাজারীর বা‌ড়ি‌তে অামা‌কে কাজের মেয়ে হিসেবে আমাকে তুলে দেয়।
তি‌নি অা‌রো জানায়, এত‌দিন আমি সেই বাড়িতে কাজ ক‌রে বড় হ‌য়ে‌ছি। বা‌ড়ির মা‌লিক অামা‌কে কখ‌নো বা‌ড়ি থে‌কে বের হ‌তে দেয়‌নি।  অনেক বার পালানোর চেষ্টা করেছি। ত‌বে সম্ভব হয়‌নি।
গত বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় ওই বাসা থেকে পালিয়ে লঞ্চে উ‌ঠে শরীয়তপুরে চলে আসি। আমার মা-বাবার কাছে শুনেছি আমাদের বাড়ি শরীয়তপুরে। তাই তা‌দের  খুঁজ‌তে এখানে এসেছি।হয়তো সুরাইয়া পরিবার-পরিজন সবই আছে। কিন্তু তাদের কাছে ওর কোন সন্ধান নেই। সুরাইয়ার প‌রিচয় খুঁজ‌তে ই‌তিম‌ধ্যে মা‌ঠে নে‌মে‌ছে পু‌লিশ।
পালং মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ম‌নিরুজ্জামান জানান, ‌মে‌য়ে‌টি থানায় অাসার পর তার ঠিকানা খুঁজ‌তে পু‌লিশ কাজ ক‌রে যা‌চ্ছে। থানায় ডি‌জি হওয়ার প‌রে অাদাল‌তের মাধ্য‌মে সুরাইয়াকে ফ‌রিদপু‌রের ‌সেইফ কাষ্টরিতে পাঠা‌নো হ‌য়ে‌ছে ।

সময়ের কণ্ঠস্বর/ফয়সাল