গুগল ম্যাপে ভুত! আতঙ্ক ছড়াচ্ছে অনেক জায়গাতেই

চিত্র বিচিত্র ডেস্ক- ম্যাপ এবং নেভিগেশন ব্যবস্থাকে হাল নাগাদের জন্য প্রযুক্তি সংস্থা গুগল বিশ্বের প্রায় সব স্থানেই ঢুঁ মেরে থাকে। বিভিন্ন স্থানের নতুন ছবি তুলে তা ব্যবহারকারীদের সুবিধার্থে আপডেট করে থাকে গুগল।

Loading ...

প্রযুক্তির আলোয় রাতও যেখানে আর অন্ধকার নয়, সেখানে এক আধুনিকতম প্রযুক্তির প্রয়োগ ঘটিয়ে দেখা গেল ভূত! গুগল ম্যাপ-এ ভূত দেখা যাচ্ছে বলে জানিয়েছে আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম ডেইলি স্টার।

প্রতিবেদনে প্রকাশ, জনৈক টুইটারেত্তি গুগল ম্যাপস-এ এলোমেলা ব্রাউজিং করার সময়ে একটি বাড়ির জানালা থেকে এক ভয়ঙ্কর মুখকে উঁকি মারতে দেখেন। তার পরে সে খবর তিনি টুইট করতেই শুরু হয় হইচই।

জেমি সি নামের ওই টুইটারেত্তি লিখেছেন— তিনি তাঁর ঠাকুরদার বাড়ি সার্চ করছিলেন। সেই বাড়ির পাশের বাড়ির জানালাতেই তিনি ওই ভয়ানক মুখটি দেখতে পান। তিনি আরও জানান, ওই বাড়িটি দীর্ঘকাল পরিত্যক্ত।

জেমি একা নন, বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্ত থেকেই গুগল ম্যাপস-এ ভৌতিক অবয়ব দেখতে পেয়েছেন, এমন বেশ কিছু ব্যক্তির কথা তুলে ধরেছে ওই প্রতিবেদন। লিভারপুলের একটি হোটেলের জানালায় একটি ‘গোলমেলে’ মুখ দেখতে পেয়েছিলেন অনেকেই। স্টুয়ার্ট হোটেল নামের ওই হোটেলটি দীর্ঘকাল ধরেই প্যারানর্মাল উপদ্রবের শিকার বলে খ্যাত।

মার্কিন সোশ্যাল মিডিয়া রেডিট-এর একটি পোস্টে ফ্রান্সের একটি বাড়ির ব্যালকনিতে উৎকট এক অবয়বকে দেখা গিয়েছে বলে সম্প্রতি দাবি করা হয়েছে। তবে গুগল ম্যাপ-এ তাকে ব্লার করে দেওয়া হয়েছে বলেও জানানো হয়েছে।

ঘটনার কিছুদিন আগে গুগল ম্যাপ থেকে পাওয়া আরও একটি ছবি সম্পর্কে প্রতিবেদন প্রকাশ করে ডেইলি স্টার। মেক্সিকোর চিহুয়াহুয়া থেকে সংগ্রহ করা গুগলের সেই ছবিতেও এক শিশুর স্পষ্ট ছায়ামূর্তি দেখা যায়। ভালো করে খেয়াল করলে বোঝা যায়, মেয়েটি সরাসরি ক্যামেরার দিকেই তাকিয়ে রয়েছে।

গুগল ম্যাপস একটি অতি জনপ্রিয় অ্যাপ। তাতে ভূত দেখার গল্পটিতে বিশ্বাস করছে না অনেকেই। অনেকের ধারণা, ভূতদর্শনের এই বিষয়টি কিছু নেটিজেনের মিচকেমি। সোশ্যাল মিডিয়ায় বাজার গরম করা ছাড়া এর পিছনে অন্য কোনও উদ্দেশ্য থাকতে পারে না।

সময়ের কণ্ঠস্বর/রবি