SOMOYERKONTHOSOR

এবার বিশ্ব কোরআন প্রতিযোগিতায় সবাইকে তাক লাগিয়ে প্রথম হলেন বাংলাদেশের আবু রায়হান

সময়ের কণ্ঠস্বর, ঢাকা- এমন অর্জন এবারই প্রথম নয় বিস্ময় বালকের ! বলতে পারেন অর্জনের ধারাবাহিকতা মাত্র। আগেই দেশের মাটিতে এমনকি আন্তর্জাতিক পর্যায়েও চমক দেখিয়েছেন নিজের অভুতপুর্ব কণ্ঠে পবিত্র কোরআন তেলওয়াত করে। ইউটিউবে সার্চ করলেই সহজেই অনুমেয় হবে ক্ষুদে এই হাফেজের জনপ্রিয়তা ।

এবার দেখালেন নতুন চমক! বাংলাদেশকে তার প্রতিভা দিয়ে নিয়ে গেলেন এক নতুন উচ্চতায়। জিম টেলিভিশনের উদ্যোগে কাতারে আয়োজিত তিজান আন নূর ইন্টারন্যাশনাল হিফজুল কোরআন বিষব প্রতিযোগিতায় প্রথম স্থান অর্জন করে ফের চমক দেখালেন বাংলাদেশের শিশু ক্বারী হাফেজ আবু রায়হান। এছাড়াও ক্বেরাত প্রতিযোগিতায়ও চতুর্থ স্থান অর্জন করেছেন এই কিশোর হাফেজ ।

খুদে হাফেজ আবু রায়হান ইতঃপূর্বে বাংলাদেশের একটি স্যাটেলাইট চ্যানেলে হেফজুল কুরআন প্রতিযোগিতায় চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল। এর আগে ২০১৬ সালে কাতার আন্তর্জাতিক হিফজুল কুরআন প্রতিযোগিতায় ৫১টি দেশের মধ্যে চতুর্থ স্থান অধিকার করে এই কিশোর হাফেজ ।
২০১৬ সালে মে মাসের শেষ নাগাদ কাতারের তাজানুর শহরে এই হেফজুল কুরআন প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়।

শিশুক্বারী হাফেজ আবু রায়হান নারায়ণগঞ্জ আড়াইহাজারে অবস্থিত মুফতি আবদুল কাইয়ুম কর্তৃক প্রতিষ্ঠিত বল্লভদী আল ইসলামিয়া একাডেমির ছাত্র। সে আড়াইহাজার উপজেলার হাইজাদী ইউনিয়নের উদয়দী গ্রামের মো: শহিদুল্লাহর ছেলে। তিন ভাই এক বোনের মধ্যে রায়হান মেঝো।

কাতার থেকে মাদ্রাসার মুহতামিম মুফতি আব্দুল কাইউম বিষয়টি নিশ্চিত করে টেলিফোনে সময়ের কণ্ঠস্বরকে জানিয়েছেন, হাফেজ আবু রায়হান নারায়নগঞ্জ আড়াইহাজার উপজেলার হাইজাদী ইউনিয়নেরবল্লভদী আল ইসলাহ একাডেমি ইন্টারন্যাশনাল মাদ্রাসার শিক্ষার্থী। তিনি আরও জানান, শিশু ক্বারী আবু রায়হান হিফজুল কুরআন প্রতিযোগিতায় অংশ নিতে ২৬ ফেব্রুয়ারি কাতার যায়। সেখানে সারাবিশ্বের ৫০ দেশের প্রতিযোগিকে পেছনে ফেলে প্রথম স্থান অর্জন করে সে।

শিশুক্বারী আবু রায়হান ছাড়াও এ প্রতিযোগিতায় আরও দুইটি পুরস্কার লাভ করে বাংলাদেশ। হিফজুল কুরআন বিভাগে দ্বিতীয় স্থান লাভ করেন তানযিমুল উম্মাহ মাদ্রাসা ঢাকার ছাত্র আরও এক হাফেজ আবু রায়হান। আর ক্বেরাত বিভাগে তৃতীয় স্থান লাভ করে দেশের খ্যাতিমান ক্বারী হাফেজ নাজমুল হাসান প্রতিষ্ঠিত তাহফিজুল কোরআন ওয়াস সুন্নাহ মাদ্রাসার ছাত্র হাফেজ মাহমুদুল হাছান।