এক জনের মুখে পরপর দু’বার অন্য দুই ব্যক্তির মুখ প্রতিস্থাপন !

চিত্র-বিচিত্র ডেস্কঃ ফ্রান্সে জেরোম হ্যামন নামের ৪৩ বছর বয়সী এক ব্যক্তির দু’বার মুখমণ্ডল প্রতিস্থাপনের অপারেশন করেছেন চিকিৎসকেরা। তার মুখমণ্ডল প্রথমবার প্রতিস্থাপন করা হয় ২০১০ সালে। দ্বিতীয়টি করা হয় গত বছর। প্রথম অপারেশন সফল হয়েছিল কিন্তু ২০১৫ সালে ঠাণ্ডা লেগে তার সংক্রমণ হবার পর তাকে এন্টিবায়োটিক দেয়া হয়। কিন্তু তার প্রতিস্থাপিত মুখমণ্ডল সেই এন্টিবায়োটিককে গ্রহণ করছিল না, ফলে দেখা দেয় জটিলতা।

প্রথম লক্ষণ দেখা দেয় ২০১৬ সালে, আর গত বছর নভেম্বরে তার প্রতিস্থাপিত মুখে নেক্রোসিস দেখা দেয়, অর্থাৎ সেই মুখের টিস্যুগুলো মরে যেতে থাকে। ফলে তার সেই বসিয়ে দেয়া মুখটিকে কেটে বাদ দিতে হয়। এর পর শুরু হয় তার মুখে নতুন করে বসানোর জন্য নতুন আরেকটি মুখের সন্ধান।

কিন্তু এমন দাতা পাওয়া যাচ্ছিল না যার মুখমণ্ডলকে জেরোমের শরীর ‘মেনে নেবে’। এই দু’মাস সময় জেরোমকে ‘মুখমণ্ডল-বিহীন অবস্থায়’ জর্জ পম্পিডু হাসপাতালে একটি কক্ষে থাকতে হয়। এই সময়টা তার কোন মুখ ছিল না। তিনি কিছু দেখতে পেতেন না, শুনতে পেতেন না বা কোন কথাও বলতে পারতেন না।

এ অবস্থা চলেছে জানুয়ারি মাস পর্যন্ত। সেই মাসেই একজন দাতা পাওয়া যায় এবং দ্বিতীয় বারের মতো তার মুখমণ্ডল প্রতিস্থাপন করা হয়। পর পর দু’বার মুখমণ্ডল প্রতিস্থাপনের অপারেশন হয়েছে, পৃথিবীতে এমন একমাত্র ব্যক্তি হচ্ছেন এই জেরোম হ্যামন। এ অপারেশনের আগে বিশেষ চিকিৎসার মাধ্যমে তার রক্ত শোধন করা হয়। উত্তর ফ্রান্সেই প্রথম মুখমণ্ডল প্রতিস্থাপন অপারেশন হয়েছিল ২০০৫ সালে। এরপর বিশ্বের নানা দেশে প্রায় ৪০টি এমন অপারেশন হয়েছে। বিবিসি।

সময়ের কণ্ঠস্বর/মহিআ

Leave a Reply