‘ফেসবুকে অপতথ্য প্রচার করায় তিন ছাত্রীকে অভিভাবকদের হাতে তুলে দেয়া হয়েছে’

সময়ের কণ্ঠস্বর- ফেসবুকের মাধ্যমে অপতথ্য প্রচার করে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়কে অস্থিতিশীল করার চেষ্টা করায় সুফিয়া কামাল হলের তিন ছাত্রীকে তাদের অভিভাবকের হাতে তুলে দেয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান। শুক্রবার সকালে সংবাদ সম্মেলন করে এ কথা জানান ঢাবি উপাচার্য।

ওই তিন ছাত্রী হলেন— গণিত বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের শারমীন শুভ, থিয়েটার অ্যান্ড পারফরম্যান্স স্টাডিজ বিভাগের চতুর্থ বর্ষের কামরুন্নাহার লিজা ও গণিত বিভাগের পারভীন।

আখতারুজ্জামান বলেন, মাঝরাতে হল থেকে তিন ছাত্রীকে বের করে দেয়া হয়নি, তাদেরকে অভিভাবকদের হাতে তুলে দেয়া হয়েছে। সুফিয়া কামাল হলের এই তিন ছাত্রী ফেসবুকে অপতথ্য ছড়ানো শিক্ষার্থী। তাদের শনাক্ত করার পর তাদের অভিভাবকদের বিষয়টি জানানো হয়, পরে তাদের অভিভাবক এসে তাদের নিয়ে যান। তিনি আরো বলেন, ‘হল এবং সকল শিক্ষার্থীর মর্যাদা রক্ষা করার জন্যই এটা করা হয়েছে। আর এ পদক্ষেপ নিয়ে হল কর্তৃপক্ষ সঠিক কাজটাই করেছেন।’

গভীর রাতে ছাত্রীদের হল থেকে বের করে দেয়ার অভিযোগ প্রত্যাখ্যান করে তিনি বলেন, ছাত্রীদের বের করে দেয়ার কথা গুজব। তিন শিক্ষার্থীদের তাদের পরিবারের হাতে তুলে দেয়া হয়েছে। এটা বিভ্রান্তি ছড়ানোর পাঁয়তারা।

সময়ের কণ্ঠস্বর/মহিআ

Leave a Reply