পালকিতে করে অনুষ্ঠানে আসলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী, পুলিশ ও র‌্যাব প্রধান !

সময়ের কণ্ঠস্বর- রাজধানীর উত্তরায় র‌্যাবের সদরদপ্তরে শনিবার দুপুরে র‌্যাবের বাংলা বর্ষবরণ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। সে অনুষ্ঠানে অংশ নিয়েছিলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল, পুলিশের আইজিপি জাবেদ পাটোয়ারী ও র‌্যাবের মহাপরিচালক বেনজীর আহমেদ। র‌্যাব সদস্যরা তাদের কাঁধে পালকিতে বসিয়ে তাদের মঞ্চে নিয়ে গেছেন। আর এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে সোশ্যাল মিডিয়ায় চলছে সমালোচনা ঝড়। কেউ এটাকে নেতিবাচক আখ্যা দিয়ে দৃষ্টিকটু বলছেন। কেউবা পক্ষে বলে ইতিবাচক হিসেবে আখ্যা দিয়েছেন।

তিনজনের পালকিতে চড়ার ছবি ফেইসবুকে নিজস্ব আইডিতে পোস্ট করেছেন সাংবাদিক কুদ্দুস আফ্রাদ। তার ওই পোস্টে অনেকে মন্তব্য করেছেন।

আনোয়ারুল করিম রাজু নামে এককজন লিখেছেন, “এটা করার কি প্রয়োজন ছিল, মাথায় ঢুকছে না।” প্রতিউত্তরে কুদ্দুস আফ্রাদ লিখেছেন, এটা আমাদের সমাজ ও সাংস্কৃতিক পরিমন্ডলে বেমানন বটে। বিশেষ করে কারো কাধে চড়া।

আজমল হক হেলাল নামে আরেকজন লিখেছেন, র্যাবের সদস্যরাও তো আমাদের মত মানুষ। নিশ্চই র্যাবের ডিজি ও পুলিশের আইজিপি তাদের কাছে খুবই গ্রহনযোগ্য সেজন্য নিয়েছে। এখানে আমি মেন করি দোষের কিছু নেই। তবে দেখতে একটু কটু কটু মনে হয়।

আব্দুল বারী নামে একজন মন্তব্য করেছেন, হায় হায় এইটা কি হলো?এখন কি হবে? কে কার বিচার করবে? এই কাজ করে এক উপজেলা চেয়ারম্যান ও টিএনও যেভাবে ধিকৃত হয়েছিল ইনাদেরও কি তাই হবে?

তবে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর দোলায় চড়া নিয়ে দোষের কিছু দেখেন না সাংবাদিক নাদিরা কিরণ। তিনি লিখেছেন, একটু অহেতুক মনে হলেও নেতিবাচক বা দৃষ্টিকটূ ভাবার দরকার নেই মনে হয়। মাত্র ক্ষণিকের একটু কাঁধে তোলা। পালকির চলনও তো ছিল এদেশে। বিশেষ করে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর এ আয়োজনে কোনো ভূমিকা নেই। তার হামবড়া ভাবও নেই। বরং র‌্যাব সদস্যরা অতিথিদের সম্মানে নিজ উদ্যোগেই করেছেন মনে করি।

সময়ের কণ্ঠস্বর/মহিআ

Leave a Reply