সৌদি আরবে অভ্যুত্থানের চেষ্টা, রাজপ্রাসাদের বাইরে প্রচণ্ড গোলাগুলি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক- সৌদি আরবের রাজপ্রাদের বাইরে মুহুর্মুহু গোলাগুলিও বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটেছে। তবে এ ঘটনায় হতাহতের কোনো খবর পাওয়া যায়নি। স্থানীয় সময় রাত ১১টার দিকে রাজধানী রিয়াদের রয়্যাল প্যালেসের সামনে এ গোলাগুলির ঘটনা ঘটে।

গোলাগুলির সময় সৌদি প্রিন্স মুহাম্মদ বিন সালমান কোথায় ছিলেন তা নিয়েও দুই রকম তথ্য প্রকাশ করা হয়েছে।

যুক্তরাজ্যভিত্তিক সংবাদমাধ্যম মিররের খবরে বলা হয়েছে, গোলাগুলির সময় যুবরাজকে নিরাপদে পার্শ্ববর্তী সেনা বাঙ্কারে সরিয়ে নেয়া হয়।

অন্যদিকে আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম নিউজ উইকের খবরে বলা হয়েছে, ওই সময় সৌদি ক্রাউন প্রিন্স মুহাম্মদ বিন সালমান ওই প্যালেসে ছিলেন না। তিনি দিরিয়ায় তার একটি ফার্মে অবস্থান করছিলেন।

নিউজ উইকের খবরে স্থানীয় পুলিশ প্রধানের বরাত দেয়া হয়েছে। তবে কারা এ গুলিবর্ষণ করেছে এবং তাদের সংখ্যা কতো কিংবা কি উদ্দেশ্যে এ হামলা চালানো হয়েছে তা এখনো জানা যায়নি।

মধ্যপ্রাচ্য ভিত্তিক গণোমাধ্যম ডেইলি সাবহা জানায়, তারা নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক সরকারী কর্মকর্তার সঙ্গে কথা বলেছেন। তিনি জানিয়েছেন, একটি ড্রোন প্রাসাদের কাছিকাছি আসলে গুলি করে ভূপাতিত করার পরপরই গোলাগুলির ঘটনা শুরু হয়। ডেইলি সাবহা আরও জানায়, প্রাসাদ অভ্যুত্থানের ঘটনাও ঘটতে পারে।

প্রেস টিভি জানায়, বাদশাহ সালমানের প্রতিপক্ষ এই হামলা চালিয়ে থাকতে পারে বলে তাদের বেশ কয়েকটি সূত্র উল্লেখ করেছে।

এদিকে হামলাকারীর সংখ্যা ও তাদের পরিচয় সম্পর্কে নিশ্চিত না হওয়া গেলেও বাদশাহ সালমানকে স্থানীয় বিমান ঘাঁটিতে নিরাপদে সরিয়ে নেয়া সম্ভব হয়েছে বলে জানা গেছে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক সৌদি সরকারি কর্মকর্তা সংবাদ মাধ্যম রয়টার্সকে জানায়, গোলাগুলির সময় বাদশাহ সালমান রিয়াদের প্রাসাদে ছিলেন না। বাদশাহ এ সময় খামার দারিয়াতে অবস্থান করছিলেন বলে জানান তিনি।

এর আগে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে পোস্ট করা ভিডিওতে অন্তত ৩০ সেকেন্ড ধরে ভারী গোলাগুলির শব্দ শোনা গেছে। এসব ভিডিওর যথার্থতা সম্পর্কে নিজেরা নিশ্চিত হতে পারেনি আলজাজিরা, রয়টার্সসহ আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম। গোলাগুলির খবরের পর সৌদি রাজ পরিবারের বিদ্রোহের গুজব ছড়িয়ে পড়ে। একটি ভিডিওতে দেখা যায় অন্ধকার সড়কে পুলিশের দুটি গাড়ি মোতায়েন রয়েছে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক ঊর্ধ্বতন সৌদি কর্মকর্তা ব্রিটিশ বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানিয়েছেন, ঘটনার সময় প্রাসাদে ছিলেন না বাদশাহ সালমান।ওই সময় তিনি রিয়াদের অন্য প্রান্ত দিরিয়া এলাকায় খামার বাড়িতে ছিলেন বলে জানান ওই কর্মকর্তা।

সামাজিক মাধ্যমে প্রকাশিত ভিডিও সম্পর্কে ওই কর্মকর্তা বলেন, ড্রোন ভূপাতিত করা হয়েছে। সরকার খেলনা ড্রোন ব্যবহারের নীতিমালা প্রণয়ন করবে।

সময়ের কণ্ঠস্বর/আরআই

Leave a Reply