‘নাগরিকত্ব ছাড়েননি তারেক’, আইনি ব্যবস্থার হুমকি বিএনপির

সময়ের কণ্ঠস্বর- বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারপারসন তারেক রহমান সম্পর্কে ‘অবান্তর ও বিভ্রান্তিমূলক’ তথ্য দেয়ায় পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলমের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেয়ার হুমকি দিয়েছে দলটি।

এছাড়া তারেক রহমান যদি বাংলাদেশের পাসপোর্ট লন্ডনে বাংলাদেশ হাইকমিশনে জমা দিয়ে থাকেন, তাহলে সেটি প্রদর্শনের চ্যালেঞ্জও দিয়েছেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্মমহাসচিব  রুহুল কবির রিজভী।

সোমবার বেলা সাড়ে ১১টায় বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে রিজভী বলেন, ‘আসলেই সংগঠন হিসেবে আওয়ামী লীগ ভিত্তিহীন, কাল্পনিক ও অনর্গল মিথ্যা বলার যে একটি ‘সেন্টার অব এক্সসেলেন্স’ সেটি আবারও প্রমাণ করল।’

বিএনপির এ নেতা বলেন, ‘পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম প্রধানমন্ত্রীর আস্থাভাজন হওয়ার জন্য রাজনৈতিক প্রতিপক্ষের বিরুদ্ধে মিথ্যা কথা বলে মন্ত্রীত্ব টিকিয়ে রাখার চেষ্টা করছেন। এটা আত্মা বিক্রির সমতুল্য। পাসপোর্ট সারেন্ডার করে তারাই, যাদের ছেলে-মেয়েরা বিদেশিদের বিয়ে করে বিদেশেই নাগরিকত্ব গ্রহণ করেন।’

রিজভী বলেন, ‘আমি চ্যালেঞ্জ করে বলছি- তারেক রহমান লন্ডনস্থ বাংলাদেশ হাইকমিশনে যদি তার বাংলাদেশি পাসপোর্ট জমা দিয়ে থাকেন, তাহলে আপনারা সেটি দেখান। হাইকমিশন তো সরকারের অধীনে, তাদের সেটি দেখাতে বলুন।’

বিএনপির জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব বলেন, ‘পৃথিবীর কোন দেশে তারা (জিয়া পরিবার) কোন নাগরিকত্ব গ্রহণও করেননি। বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান জনাব তারেক রহমানের পাসপোর্ট হাইকমিশনে জমার বিষয়ে পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী যে উড়ো, অবান্তর কথা বলেছে, তার জন্য আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।’

তিনি বলেন, ‘জিয়া পরিবারের সদস্যরা বাংলাদেশের মাটি, পানি ও জলবায়ুর সন্তান। সরকারের চক্রান্তে মিথ্যা মামলায় পরিণতি কী হবে সেটি নিয়ে কোনো চিন্তা না করে কিছুদিন আগে লন্ডন থেকে দেশে ফিরে এসেছেন বেগম খালেদা জিয়া। দেশনেত্রীর দেশে ফিরে আসার পর তাকে দেয়া হয় সরকারি ফরমানে প্রতিহিংসার সাজা। এখন কারাবন্দি থেকে অমানবিক জুলুম সহ্য করে যাচ্ছেন। অথচ দেশনেত্রী বিদেশে গিয়েও সেখানে থেকে যাওয়ার চিন্তা করেননি। দেশনেত্রীর এই ভূমিকাই হচ্ছে জাতীয়তাবাদী দেশপ্রেমিকের ভূমিকা।’

সংবাদ সম্মেলনে অন্যান্যদের মধ্যে বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান শওকত মাহামুদ, উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য আবুল খায়ের ভুইয়া, আতাউর রহমান ঢালী, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুস সালাম আজাদ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

Leave a Reply