কুড়িগ্রামে ৫২ বছরের বৃদ্ধের লালসার শিকার এক বাক প্রতিবন্ধী

ফয়সাল শামীম: নিজস্ব প্রতিবেদক:কুড়িগ্রামের ভূরুঙ্গামারীতে ১২ বছরের এক বাকপ্রতিবন্ধী শিশুকে ৫২ বছরের বৃদ্ধ ধর্ষণ করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

অভিযোগ সুত্রে জানা গেছে, উপজেলার তিলাই ইউনিয়নের পশ্চিম ছাটগোপালপুর গ্রামের মৃত: পচা মন্ডলের পুত্র লম্পট শহর আলী শুক্রবার বিকেলে তার প্রতিবেশী দিনমজুর রফিকুল ইসলামের বাকপ্রতিবন্ধী কন্যা মোছাঃ রত্না খাতুন কে বাড়িতে একা পেয়ে মুখে গামছা বেঁধে ধর্ষণ করতে থাকে।

এ সময় শিশুটির চিৎকারে তার পিতা ও এলাকাবাসী এগিয়ে আসলে শিশুটির পিতাকে ধাক্কা মেরে ফেলে দিয়ে ধর্ষক শহর আলী পালিয়ে যায়। শিশুটির পিতা ঐ দিনই ভূরুঙ্গামারী থানায় মামলা করতে গেলে এলাকার জনৈক আবু হানিফ ও সাগর আলী মাষ্টার নামে দুজন মাতাব্বর গ্রাম্য বিচারে মিমাংসার কথা বলে তাকে বাড়িতে ফেরত পাঠায়। এদিকে ঘটনার ৪ দিন পেরিয়ে গেলেও ধর্ষিতার পিতা রফিুকল ইসলাম মেয়ে ধর্ষণের সুষ্ঠ বিচার না পেয়ে তিলাই ইউনিয়ন গ্রাম আদালতে বিচার চেয়ে সোমবার একটি অভিযোগ করেন।

তিলাই ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান ফরিদুল ইসলাম শাহীন শিকদার অভিযোগ পাওয়ার কথা স্বীকার করে জানান, দুপক্ষকেই নোটিশ করে গ্রাম আদালতে বিচারে সমাধানের চেষ্টা করা হবে। তবে সমাধান না হলে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

বর্তমানে ধর্ষক পক্ষের বিভিন্ন হুমকির মুখে নিরাপত্তাহীনতায় পরছে শিশুটির পরিবার। এলাকাবাসী বাকপ্রতিবন্ধী শিশুর ধর্ষণকারীর দৃষ্টান্তমুলক শাস্তির দাবী জানিয়ে প্রশাসনের উর্ধ্বত্তন কর্তৃপক্ষের জরুরী হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

Leave a Reply