চীনের কারাওকে লাউঞ্জে আগুনে পুড়ে নিহত ১৮ জন

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ

চীনের কারাওকে লাউঞ্জে আগুনে পুড়ে মরেছেন ১৮ জন। দগ্ধ হয়েছেন আরও পাঁচজন। দুর্ঘটনাটি ঘটেছে মঙ্গলবার চীনের গুয়াংডং প্রদেশের কুইংগুয়ান শহরে।

শহরের ইয়াঙ্গডে অঞ্চলের ওই তিনতলা বাড়িটিতে স্থানীয় সময় মধ্যরাতে আগুন লাগে। ওই বাড়িতেই ছিল স্থানীয় একটি কারাওকে টিভির লাউঞ্জ। খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা গিয়ে ঘণ্টা খানেকের চেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আনেন।

কিন্তু ওই বাড়ির সদর দরজায় এক ব্যক্তি মোটরবাইক রেখে আটকিয়ে দেয়ায় এবং বেরনোর একটিই গলি এবং সেটি সকীর্ণ হওয়ায় ওই সময়ের মধ্যে অগ্নিদগ্ধ হয়ে মারা যান ১৮ জন।

যে ব্যক্তি পথ আটকিয়ে রেখেছিলেন, সিসিটিভি ফুটেজে তাকে চিহ্নিত করে তার খোঁজ দেয়ার জন্য ৩২,০০০ মার্কিন ডলার পুরস্কার ঘোষণা করেছে পুলিশ।কিছুক্ষণের মধ্যে নিকটবর্তী একটি গ্রাম থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন, প্রথমে ওই ব্যক্তি লাউঞ্জের সামনে কর্তব্যরত পুলিশের সঙ্গে বচসায় জড়ায়। তারপরই নিজের বাইক লাউঞ্জের মূল প্রবেশপথের সামনে রেখে দিয়ে আগুন লাগিয়ে দেয়।

চীনাদের অবসর যাপনের অন্যতম উপায় কারাওকে নাচ-গান অনুষ্ঠানস্থল। বিভিন্ন শপিং মল, বড় দোকানেও এ ধরনের কারাওকে লাউঞ্জ আছে।

Leave a Reply