জব্বারের বলী খেলাকে ‘বিশ্ব ঐতিহ্য’ ঘোষণার দাবি, প্রথম দিনের খেলায় চ্যাম্পিয়ন জীবন বলী

জে. জাহেদ, চট্টগ্রাম ব্যুরো- চট্টগ্রামের ঐতিহাসিক আব্দুল জব্বারে বলী খেলাকে বিশ্ব ঐতিহ্যের তালিকায় অন্তর্ভুক্ত করার আবেদন জানিয়েছেন চট্টগ্রামের সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দিন। বুধবার খেলা চলাকালে সাংবাদিকদের মাধ্যমে জাতিসংঘের শিক্ষা, বিজ্ঞান ও সংস্কৃতি বিষয়ক সংস্থার (ইউনেসকো) কাছে এ দাবি করেন সিটি মেয়র।

বুধবার (২৫ এপ্রিল) বিকেল ৪টায় বলী খেলার উদ্বোধন করেন সিএমপির ভারপ্রাপ্ত পুলিশ কমিশনার মো. মাসুদুল হাসান। ৪টা ৩৫ মিনিটে সাধারণ ধাপের বলীদের লড়াইয়ের মধ্য দিয়ে চট্টগ্রামের লালদিঘি মাঠে ঐতিহ্যবাহী আব্দুল জব্বারে বলী খেলার ১০৯তম আসর শুরু হয়। বুধবারের খেলায় টানা ১৫ মিনিট ধরে একে অপরের সঙ্গে লড়াই শেষে কুমিল্লার শাহজালাল বলীকে হারিয়ে প্রথমবারের মতো চ্যাম্পিয়ন হওয়ার গৌরব অর্জন করেন চকরিয়ার জীবন।

এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত আছেন চট্টগ্রাম সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিতে আছেন খেলার স্পন্সর বাংলালিংক ডিজিটাল কমিউনিকেশন্স লিমিটেডের রিজিওনাল ডিরেক্টর সৌমেন মিত্র। আরও উপস্থিত আছেন জব্বারের বলী খেলা ও বৈশাখী মেলা কমিটির সভাপতি কাউন্সিলর জহরলাল হাজারী ও সাধারণ সম্পাদক শওকত আনোয়ার বাদলসহ আয়োজক কমিটির অন্যান্য সদস্যরা।

এ বছরও খেলা পরিচালনা করছেন চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের সাবেক কাউন্সিলর আবদুল মালেক। তাকে সহায়তা করেন ইকবাল বালী, জাহাঙ্গীর ও লেদু।

প্রসঙ্গত, ভারতবর্ষের স্বাধীন নবাব টিপু সুলতানের শাসন অবসানের পর ভারতীয় উপমহাদেশে বৃটিশ শাসনামল শুরু হয়। বাঙালি সংস্কৃতি বিকাশ ও বাঙালি যুব সম্প্রদায়ের মধ্যে ব্রিটিশবিরোধী মনোভাব তৈরি করতে এগিয়ে আসেন বদরপাতি এলাকার ধনাঢ্য ব্যবসায়ী আব্দুল জব্বার সওদাগর।

বাংলা বর্ষের ১২ বৈশাখ ১৩১৬ বঙ্গাব্দ, ১৯০৯ সালে আব্দুল জব্বার সওদাগর বলী খেলার আয়োজন করেন। পরে এ প্রতিযোগিতা ‘জব্বারের বলী খেলা’ নামে পরিচিতি লাভ করে।

প্রসঙ্গত, তিনটি বাউটে সারাদেশ থেকে আসা ১৫ থেকে ৬০ বছর বয়সী ১০২ জন বলী অংশ নিচ্ছেন।

Leave a Reply