কোহলিদের দেয়া বিশাল রান তাড়া করে চেন্নাইকে ধোনির জয় উপহার

স্পোর্টস্ আপডেট ডেস্ক- রুদ্ধশ্বাস ম্যাচ বোধহয় একেই বলে। ভারতের চিন্নাস্বামী স্টেডিয়ামে রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্সের ২০৫ রান তাড়া করে আরও একবার অনবদ্য ব্যাটসম্যানশিপে জয় কেড়ে নিলেন চেন্নাই সুপার কিংসের ব্যাটসম্যানরা। কলকাতা ম্যাচের পর ফের একবার ২০০ রান তাড়া করে ম্যাচ জিতে লিগ শীর্ষে চলে গেল চেন্নাই।

আর বুধবারের জয়ে আরও একবার মহাকাব্যিক ইনিংস খেলে অপরাজিত থেকে চেন্নাইকে এক স্মরণীয় জয় এনে দিলেন মহেন্দ্র সিং ধোনি। মাত্র ৩৪ বলে ৭০ রান করে অপরাজিত ছিলেন মাহি। এবং একেবারে সিগনেচার স্টাইলে শেষে ছক্কা হাঁকিয়ে ম্যাচ শেষ করলেন ধোনি।

২ বল বাকী থাকতেই ৫ উইকেটে জয় পেল চেন্নাই সুপার কিংস। এর আগে ২০৬ রান তাড়া করতে নেমে প্রথম ওভারেই ৭ রানে ফিরে যান ওয়াটসন। তৃতীয় উইকেটে ৪২ রান যোগ করলেও সুরেশ রায়না ১১ রানে ফিরে যান। ৫০ রানে ২ উইকেট পড়ার পরে নামেন স্যাম বিলিংস। তবে তিনিও বেশিক্ষণ টেকেননি। ৯ রানে বিলিংস ফেরার পরে ৩ রানে ফিরে যান রবীন্দ্র জাদেজাও। এরপরে নামেন মহেন্দ্র সিং ধোনি। অম্বাতি রায়াডুকে সঙ্গে করে ১০১ রানের পার্টনারশিপ গড়েন মাত্র ৫৩ বলে। রায়াডু ৫৩ বলে ৮২ রানের অসাধারণ ইনিংস খেলে ২ রান নিয়ে গিয়ে উমেশ যাদবের সরাসরি থ্রোয়ে রান আউট হয়ে ফিরলে ম্যাচ জেতানোর পুরো দায়িত্ব এসে যায় ধোনির কাঁধে।

শেষ অবধি ধোনি ম্যাচ জিতিয়ে ৩৪ বলে ৭০ রান করে অপরাজিত থেকে মাঠ ছাড়েন। শেষ দুই ওভারে প্রয়োজন ছিল ৩২ রান। ২ বল বাকী থাকতেই শেষে ছক্কা হাঁকিয়ে ধোনি ম্যাচ জিতিয়ে ফেরেন।

আরসিবির হয়ে একমাত্র উমেশ যাদব ও যুজবেন্দ্র চাহা ছাড়া কোনও বোলার প্রভাব ফেলতে পারেননি। যাদব ২৩ রানে ১টি ও চাহাল ২৬ রানে ২ উইকেট নেন। আর সব বোলার ওভার প্রতি ১২ রানের বেশি দিয়ে চেন্নাইকে জয় পেতে সহযোগিতা করেন। এ ম্যাচে জয়ের ফলে পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে উঠে গেল চেন্নাই। ৬ ম্যাচ খেলে ১০ পয়েন্ট ধোনিদের। পঞ্জাবও ১০ পয়েন্ট পেলেও ধোনিরা রান রেটে এগিয়ে রয়েছে। এদিকে রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোর ৬ ম্যাচে ২টি জিতে ষষ্ঠ স্থানেই থাকল।

Leave a Reply