ঢাকায় অগ্রিম টিকিট বিক্রির পুরনো সব রেকর্ড ভেঙে দিল ‘অ্যাভেঞ্জার্স’

বিনোদন ডেস্ক- হলিউডের ইতিহাসে সবচেয়ে ব্যবসাসফল কিছু ছবির মধ্যে আছে অ্যাভেঞ্জার্স-এর নাম। মার্ভেল কমিকসের সাড়াজাগানো ফ্রাঞ্চাইজি 'অ্যাভেঞ্জার্স'-এর নতুন কিস্তি 'অ্যাভেঞ্জার্স: ইনফিনিটি ওয়ার' বিশ্বব্যাপী মুক্তি পাচ্ছে শুক্রবার (২৭ এপ্রিল)। 

বিশ্বের অন্যান্য দেশের সঙ্গে একই দিনে ঢাকার স্টার সিনেপ্লেক্সেও মুক্তি পাবে ছবিটি। সুপারহিরো ভক্তদের ছবিটিকে ঘিরে উন্মাদনার যে শেষ নেই তারই প্রমাণ মিললো বসুন্ধরা সিটির সামনে গিয়ে। 

মুক্তির আগেই ছবির টিকিট পেতে বসুন্ধরা সিটির ৮তলা থেকে একেবারে গ্রাউন্ডফ্লোর শেষ হয়ে রাস্তায় গিয়ে লাইন ঠেকেছে। যা স্টার সিনেপ্লেক্সের ইতিহাসে বিরল। এরই মধ্যে অগ্রিম টিকিট বিক্রির পুরনো সব রেকর্ড ভেঙে দিয়েছে ছবিটি। 

শুধু বাংলাদেশ নয়, দেশের বাইরেও অগ্রিম টিকিট বিক্রির পুরোনো সব রেকর্ড ভেঙে দিয়েছে মাত্র ছয় ঘণ্টায়। যুক্তরাষ্ট্রের অন্যতম অনলাইনে টিকিট বিক্রির ওয়েবসাইট ফ্যানড্যানগো জানিয়েছে, তারা অনলাইনে ছবির অগ্রিম টিকিট ছাড়ার পর থেকে বেশ চাপে আছে। এতটা চাপ অন্য কোনো ছবির ক্ষেত্রে দেখা যায়নি। ছবির প্রথম ট্রেলার ইউটিউবে উন্মুক্ত হয়েছে গত ২৯ নভেম্বর।

এর আগে মুক্তি পাওয়া ‘অ্যাভেঞ্জারস’ সিরিজের ছবিগুলোর ব্যাপক সাফল্য এ ছবির ব্যাপারে প্রত্যাশা কয়েক গুণ বাড়িয়ে দিয়েছে। সিরিজের নতুন ছবির জন্য দর্শকেরা কতটা মুখিয়ে আছেন, তা আঁচ করা যায় ছবির ট্রেলার প্রকাশের পর। অনলাইনে এর ট্রেলার দেখতে রীতিমতো হুমড়ি খেয়ে পড়েছে বিশ্বের ভক্তরা। তৈরি হয়েছে ইতিহাস। কম সময়ে সবচেয়ে বেশি দেখা ট্রেলারের রেকর্ড এখন ‘অ্যাভেঞ্জারস: ইনফিনিটি ওয়ার’ ছবির দখলে। প্রকাশের প্রথম ২৪ ঘণ্টায় তা দেখা হয়েছে ২৩ কোটিবার! যা ছাড়িয়ে গেছে পুরোনো সব রেকর্ড।

সিনেপ্লেক্সের প্রধান বিপণন কর্মকর্তা মেসবাহ উদ্দিন আহমেদ বলেন, অ্যাভেঞ্জার্স নিয়ে মানুষের আগ্রহ দেখার মতো। সারা বিশ্বেই এই ছবিটি নিয়ে একই রকম চাহিদা। ঢাকার দর্শকের চাহিদা দেখে প্রতিদিন ১৩টি করে শো চালানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছি আমরা। এরমধ্যে আগামী শুক্রবার ও শনিবারের কোনো টিকিট নেই।

আমি স্টার সিনেপ্লেক্সে ১৪ বছর ধরে কাজ করছি। আমার ক্যারিয়ারে দর্শকদের অগ্রিম টিকেটের জন্য এত ভীড় এর আগে কখনো দেখিনি। কোনো ঈদ নেই, উৎসব নেই অথচ সিনেমার টিকিট পেতে গতকাল বুধবার থেকেই দীর্ঘ লাইন। স্টার সিনেপ্লেক্সের টিকিট কাউন্টার থেকে সেই লাইন বসুন্ধরা সিটির সামনে রাস্তা পর্যন্ত গিয়ে ঠেকেছে। এটা সত্যিই দারুণ একটা ব্যাপার। ভালো নির্মাণ হলে যে দর্শক সিনেমা হলে আসে সেটারই প্রমাণ দিল ‘অ্যাভেঞ্জার্স’।

‘অ্যাভেঞ্জার্স: ইনফিনিটি ওয়ার’ যৌথভাবে পরিচালনা করেছেন দুই ভাই জো রুশো ও অ্যান্থনি রুশো। বিশ্বের সর্বকালের সবচেয়ে বেশিবার দেখা ট্রেইলারের রেকর্ডও ভেঙে দিয়েছে ছবিটি।সিনেমায় দেখা যাবে, ঘনিয়ে আসছে মহাপ্রলয়। পৃথিবী সঙ্কটাপন্ন। আসছে সর্বগ্রাসী থানোস। তার হাত থেকে পৃথিবী রক্ষা করতে এক হয়েছে বড় পর্দার সব সুপারহিরো।

থানোসকে রুখতে পরিকল্পনা সাজাচ্ছেন ক্যাপ্টেন আমেরিকা, আয়রনম্যান, হাল্ক, থর, ডক্টর স্ট্রেঞ্জ, স্পাইডার ম্যান, ব্ল্যাক উইডো, উইন্টার সোলজার, ব্ল্যাক প্যান্থার। তাদের সঙ্গে যুক্ত হয়েছে গার্ডিয়ানস অব দ্য গ্যালাক্সি বাহিনী। বাকিটুকু দেখতে হবে পর্দায়।

Leave a Reply