গাঁজা, হেরোইন ও কোকেন নিয়েই যাওয়া যাবে রাশিয়া বিশ্বকাপে!

স্পোর্টস আপডেট ডেস্ক- আগামী জুনে রাশিয়ায় বসছে বিশ্বকাপ ফুটবল মহাযজ্ঞ। বিশ্বজুড়ে যার উন্মাদনা ছড়িয়ে পড়েছে অনেক আগেই। ‘গ্রেটেস্ট শো অন আর্থ’ উপলক্ষ্যে সব ধরনের প্রস্তুতি সেরে ফেলেছে আয়োজক দেশটিও। আর এখন প্রস্তুত হচ্ছেন ইতিহাসের সাক্ষী হতে চলা দর্শকেরা। আর ক'দিন বাদেই যে বিশ্বের নানা প্রান্ত থেকে ফুটবলপিপাসুরা পাড়ি জমাবেন বিশ্বের বৃহত্তম দেশে।

মহামর্যাদার এই আসর শুরুর আগে রাশিয়ার এক সংবাদমাধ্যম ভার্চুয়াল জগতে ব্যাপক সাড়া ফেলেছে। দেশটির প্রভাবশালী সাপ্তাহিক পত্রিকা মস্কো টাইমসের প্রতিবেদন বলছে, বিশ্বকাপ দেখতে আসা দর্শকেরা গাঁজা, হেরোইন, কোকেন, মারিজুয়ানার মতো নেশা জাতীয় দ্রব্য সঙ্গে নিতে পারবেন।

রাশিয়ার নেতৃত্বাধীন ইউরেশিয়ান অর্থনৈতিক জোট বিশ্বকাপ উপলক্ষে ভ্রমণকারীদের কিছু নিষিদ্ধ দ্রব্য বহনের অনুমতি দিয়েছে। এর মধ্যে রয়েছে গাঁজা, হেরোইন, কোকেন, ভাং ইত্যাদি। তবে এর জন্য শর্ত পূরণ করতে হবে বহনকারীদের। তা হচ্ছে, চিকিৎসকের দেয়া ব্যবস্থাপত্র সঙ্গে রাখতে হবে এবং তা হবে রাশিয়ান ভাষায় লেখা।

বিশ্বকাপ আয়োজক কমিটি ক্রেমলিনপন্থী গণমাধ্যম লজভেস্তিয়াকে জানিয়েছে, আইন প্রয়োগকারী সংস্থা প্রেসক্রিপশন যাচাই করার জন্য স্টেডিয়ামে নিয়োজিত থাকবে।

কমিটির এক মুখপাত্র বলেন, ‘নিরাপত্তা কর্মকর্তারা স্টেডিয়ামে ড্রাগস বহনকারীদের প্রেসক্রিপশন যাচাই করবেন। ফিফা’র নিয়মানুযায়ী রাশিয়ান ও বিদেশি দর্শকরা ৭ ধরনের ড্রাগ নিয়ে স্টেডিয়ামে প্রবেশ করতে পারবে। তবে কোনটাই এক প্যাকেটের বেশি নেয়া যাবে না।’

উল্লেখ্য, ১৪ জুন মস্কোর লুঝনিকি স্টেডিয়ামে পর্দা উঠবে বিশ্বের সবচেয়ে জনপ্রিয় এ ক্রীড়া আয়োজনের। ১৪ জুন থেকে ২৮ জুন পর্যন্ত গ্রুপ পর্বের ৪৮টি ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে। ৩০ জুন থেকে শুরু হবে নকআউট পর্বের খেলা। ৩ জুলাইয়ের মধ্যে হবে শেষ ষোলোর ম্যাচগুলো।

কোয়ার্টার ফাইনাল হবে ৬ ও ৭ জুলাই। এরপর ১০ ও ১১ জুলাই হবে দুটি সেমিফাইনাল। ১৪ জুলাই হবে তৃতীয় স্থান নির্ধারণী ম্যাচ। আর ১৫ জুলাই মস্কোর লুঝনিকি স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত হবে বহুল আকাঙ্ক্ষিত ফাইনাল।