সংবাদ শিরোনাম
ঈদ উপলক্ষে কক্সবাজারে পর্যটকদের সর্বোচ্চ নিরাপত্তায় আগাম সতর্কবার্তা | ঈদ আনন্দ নেই কৃষকদের মনে, বাগেরহাটের মার্কেটে নেই ক্রেতা | ঈদের আগেই ‘ঈদ উপহার’ দিলাম: প্রধানমন্ত্রী | সিরাজগঞ্জে বজ্রপাতে ২ ঘুমন্ত শ্রমিকের মৃত্যু | উত্তপ্ত পশ্চিমবঙ্গ: দফায় দফায় সংঘর্ষ, বিজেপি নেতা গুলিবিদ্ধ | বিমানেই উঠে পড়ছিল দুই রোহিঙ্গা নারী! | তিনগুণ বেশি দামে কাপড় বিক্রি করছে ‘মিমি সুপার মার্কেট’, লাখ টাকা জরিমানা | সেতু, ফ্লাইওভার, আন্ডারপাস উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী | বসল পদ্মাসেতুর ১৩তম স্প্যান, দৃশ্যমান ২ কিমি | পঞ্চম শ্রেণির স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণের পর গর্ভের সন্তান নষ্ট করাল আব্দুল মান্নান |
  • আজ ১১ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

কার কাছে যাবে সাদ্দামের ‘‌গুপ্তধন’‌ !

৬:২২ অপরাহ্ণ | বুধবার, মে ২৩, ২০১৮ আন্তর্জাতিক

আন্তর্জাতিক ডেস্ক :: সাদ্দাম হোসেনের মৃত্যু হয়েছে ১৫ বছর হয়ে গেছে। তাঁর সম্পত্তির প্রায় পুরোটাই বাজেয়াপ্ত করেছে ইরাক সরকার। কিন্তু সব সম্পত্তি কি হাতে এসেছে ইরাক সরকারের?‌ জনশ্রুতি আছে, সাদ্দামের বিপুল সম্পত্তির অনেকটাই এখনো লুকানো রয়েছে। সে সবের সন্ধানও পায়নি ইরাক কিংবা আমেরিকা।

সম্প্রতি আলোচনা শুরু হয়েছে সেই ‘‌গুপ্তধনের’‌ একটা ছোট্ট অংশকে নিয়ে। অবশ্য লুকানো নয়, দীর্ঘদিন ধরেই লোকচক্ষুর সামনেই রয়েছে সাদ্দামের সেই সম্পত্তি। তবে কে তার মালিকানা পাবেন, সেটা নিয়ে এখনও বিবাদ মেটেনি।

ইরাকের বসরা শহরে একটি বিলাসবহুল প্রমোদতরী বানিয়েছিলেন সাদ্দাম। কিন্তু একবারের জন্যও সময় কাটাতে পারেননি সেই প্রমোদতরীতে। এখন সেটার মালিকানা কার হাতে যাবে, সেটা নিয়ে উঠেছে প্রশ্ন। কী নেই সেই ৮২ মিটার লম্বা দৈত্যাকৃতি প্রমোদতরীতে। অতিথিদের জন্য ১৭টি ঘর, কর্মীদের জন্য ১৮টি ঘর, রান্নশালা, এমনকি চিকিৎসালয়ও রয়েছে। যে কর্মীদের ওই বিলাসতরীর জন্য নিয়োগ করা হয়েছিল, তাঁরা এখনও ঝকঝকে অবস্থায় রক্ষণাবেক্ষণ করছেন ওই প্রমোদতরীর। শোনা যাচ্ছে, একটি হোটেল তাঁদের অতিথিদের জন্য ওই প্রমোদতরীটি কিনতে পারে।