জীবন বীমার ২৪০ কোটি টাকা হাতাতেই শ্রীদেবীকে হত্যা করা হয়!

বিনোদন ডেস্ক :: বলিউডের কিংবদন্তী অভিনেত্রী শ্রীদেবীর মৃত্যুর প্রায় তিন মাসের মাথায় প্রাক্তন এসিপি বেদ ভূষণ শ্রীদেবীর মৃত্যুকে ‘পরিকল্পিত খুন’ আখ্যা দেয়ার মাথায় নতুন বিতর্ক উস্কে দিলেন ফিল্ম মেকার সুনীল সিংহের আইনজীবি বিকাশ সিংহ। সুনীল সিংহও এটা হত্যাকান্ড বলেছেন।

এবার তার আইনজীবি বিকাশ দাবি করেছেন, শ্রীদেবীর নামে ওমানে ২৪০ কোটি টাকার ইনসিউরেন্স পলিসি কেনা হয়। সেই পলিসির মূল দফা অনুযায়ী, পলিসির টাকাটা তখনই এনক্যাশড হবে যদি শ্রীদেবীর মৃত্যু দুবাইতে হয়। আর ঘটনাক্রমে সেটাই হয়েছে। তাই এসিপি বেদ ভূষণের সাথে সুর মিলিয়ে ফিল্ম মেকার বিকাশ সিংহও দাবি করেলেন যে শ্রীদেবীর মৃত্যু আসলে বাথটাবে ডুবে হয়নি। তাঁকে খুন করা হয়েছে। যদিও বিকাশ সিংহ ও এসিপি ভূষণ কাউকে সরাসরি দোষারোপ করেননি।

তবে সম্প্রতি এক সাক্ষাৎকারে বেদ ভূষণ দুবাই পুলিশের ময়নাতদন্তের কিছু রিপোর্ট সামনে এনে বলেন, বাথটবের জলে জোর করে ফেলে যেকোনও ব্যক্তিতে খুন করা সম্ভব৷ আর এই ধরণের খুনে কোনও প্রমাণ থাকেনা৷ ফলে খুব সহজেই একে দুর্ঘটনাজনিত মৃত্যু বলে প্রমাণ করা যায়’৷ শ্রীদেবীর ক্ষেত্রেও ঠিক তাই হয়েছে বলে ধারণা প্রাক্তন এসিপির।

এই কারণ ছাড়া আরো একটি কারণ উঠে এসেছে আলোচনায়। সেটি হলো এই খুনের সাথে নাকি আন্ডারওয়ার্ল্ড ডন দাউদ ইব্রাহিমও জড়িত!

কারণ, শ্রীদেবী দুবাইয়ের যে বিলাসবহুল হোটেল জুমেরিয়াহ এমিরেটস টাওয়ারে থাকতেন সে টাওয়ারটির মালিক দাউদ ইব্রাহিম। তাই এসিপি ভূষণ মনে করছেন, শ্রীদেবীর মৃত্যুর পিছনে হাত রয়েছে দাউদের। তবে কোন পরিপ্রেক্ষিতে তিনি এমন কথা বলছেন, তা এখনও জানা যায়নি।