মুচলেকা দিয়ে জামিন পেলেন কণ্ঠশিল্পী আসিফ

নিজস্ব প্রতিবেদক, সময়ের কণ্ঠস্বর- তথ্যপ্রযুক্তি মামলায় কণ্ঠশিল্পী আসিফ আকবরের জামিন মঞ্জুর করেছেন আদালত। সোমবার সকাল সাড়ে ১১টায় ঢাকা মহানগর হাকিম কেশব চন্দ্র রায় ১০ হাজার টাকা মুচলেকা বন্ডে পুলিশ প্রতিবেদন পর্যন্ত তার জামিন মঞ্জুর করেন।

এদিন সকালে আসিফের পক্ষে তার আইনজীবী আদালতে জামিনের আবেদন করেন। পরে জামিন আবেদনে শুনানি শেষে আদালত জামিন মঞ্জুর করেন।

এর আগে গতকাল রোববারও আসিফের আইনজীবী জামিনের আবেদন করেন। তবে কোনো কারণ উল্লেখ্য না করে জামিন আবেদনটি প্রত্যাহার করে নেন।

প্রসঙ্গত, রাজধানীর তেজগাঁও থানায় সুরকার ও গায়ক শফিক তুহিনের তথ্যপ্রযুক্তি আইনে  দায়ের করা একটি মামলায় মঙ্গলবার রাত দেড়টার দিকে পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগের (সিআইডি) একটি দল মগবাজারে অবস্থিত অফিস থেকে আসিফকে গ্রেপ্তার করে।

পরদিন বুধবার তাকে আদালতে হাজির করেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা সিআইডির উপ-পরিদর্শক (এসআই) প্রলয় রায়। ঘটনার বৃত্তান্ত জানতে আসিফকে পাঁচ দিন হেফাজতে (রিমান্ডে) নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করার অনুমতি চেয়ে আবেদন দাখিল করেন প্রলয় রায়।

বেলা ২টার দিকে ঢাকার প্রথম অতিরিক্ত মুখ্য মহানগর হাকিম কেশব রায় চৌধুরীর এজলাসে শুনানি শেষে রিমান্ড ও জামিন আবেদন নাকচ করে তাকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেওয়া হয়।

আসিফের বিরুদ্ধে করা মামলায় শফিক তুহিন উল্লেখ করেছেন, গত ১ জুন একটি বেসরকারি টেলিভিশনের অনুসন্ধানী প্রতিবেদনের মাধ্যমে তিনি জানতে পারেন, আসিফ আকবর তার অনুমতি ছাড়াই তার সংগীতকর্মসহ অন্যান্য গীতিকার, সুরকার ও শিল্পীদের ৬১৭টি গান সবার অজান্তে বিক্রি করে অসাধুভাবে ও প্রতারণার মাধ্যমে বিপুল অর্থ উপার্জন করেছে।

এরপর শফিক তুহিন গত ২ জুন রাত ২টা ২২ মিনিটে তার ব্যক্তিগত ফেসবুক অ্যাকাউন্ট থেকে অনুমোদন ছাড়া গান বিক্রির এই ঘটনা উল্লেখ করে একটি পোস্ট দেন। তার ওই পোস্টের নিচে আসিফ আকবর নিজের একটি অ্যাকাউন্ট থেকে অশালীন মন্তব্য ও হুমকি দেন।

পরের লাইভ ভিডিওতে আসিফ অবমাননাকর, অশালীন বক্তব্য দেন। এ ছাড়া শফিক তুহিনকে শায়েস্তা করবেন বলে হুমকি দেন। এতে শফিক তুহিনের মানহানি হয়েছে।