প্রচন্ড গরমে হাঁসফাঁস করছেন? এই লেখাটি আপনার জন্য

লাইফস্টাইল ডেস্ক :: গত কয়েক বছর ধরে সারা পৃথিবীর আবহাওয়ায় যে পরিবর্তন ঘটেছে, তা থেকে স্বাভাবিকভাবেই বাদ পড়েনি বাঙালির প্রাণের শহর ঢাকাও।

এক সময়ে গরমকালে মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলোর তাপমাত্রা শুনেই ঢাকাবাসীর চোখ বড় হয়ে যেত। কিন্তু গত কয়েক বছর ধরে প্রচন্ড তাপমাত্রায় জ্বলে-গলে যাচ্ছে শহরবাসী।

এই প্রখর দহনজ্বালা থেকে শরীর ঠান্ডা রাখতে কত কিছুই না করছে মানুষ। কেউ দিনে বার চারেক গোসল সাড়েন, কেউ সুযোগ পেলেই ঠান্ডা পানীয় বা আইসক্রিম খান। সঙ্গে এসি-র ঠান্ডা বাতাস তো রয়েছেই। কিন্তু, এ সবই সাময়িক আরাম দেয় শরীরকে। এবং সঙ্গে নানা রোগ-ব্যাধিও নিয়ে আসে।

বিজ্ঞান মতে, কয়েকটি সহজ ঘরোয়া উপায় রয়েছে, যা ভিতর থেকে শরীর ঠান্ডা ও রোগমুক্ত রাখে। যেমন-

১। সারা দিনে প্রচুর পরিমাণে পানি খান। এতে শরীর ‘হাইড্রেটেড’ থাকে।

২। গরমে ঘামের জন্য ত্বকের ক্ষতি হয়। চেষ্টা করুন খাবারের সঙ্গে লেবু খেতে। বা, লেবুর সরবতও খেতে পারেন। লেবুর ভিটামিন সি ত্বকের জন্য খুবই উপকারী।

৩। গরমকালে প্রচুর ফল পাওয়া যায়। চেষ্টা করুন, ব্রেকফাস্টে প্রচুর পরিমাণে ফল খেতে। সারা দিনেও ফল খেতে পারেন। কিন্তু, রাতে একেবারেই ফল খাওয়া উচিৎ নয়।

৪। গরমকালে হজমের সমস্যা হয়। তাই দিনে বা রাতের খাবারের আধ ঘণ্টা আগে এক গ্লাস পানি খেয়ে নিন।

৫। এই সময়ে কাঁচা পেঁয়াজ খুবই উপকারী। পেঁয়াজে এক ধরনের ‘অ্যান্টি অ্যালার্জেন’ রয়েছে যা শরীর ভিতর থেকে ঠান্ডা রাখে।

৬। গরমকালে তরতাজা মাছ পাওয়া যায় না। মাংস শরীর গরম করে। সে ক্ষেত্রে, শরীরে প্রোটিনের মাত্রা ধরে রাখতে ডিম সেদ্ধ খুবই উপকারী। এতে কার্বোহাইড্রেটও রয়েছে, যা এনার্জি জোগায়।