মুহুরী নদীর পানি বিপদসীমার উপরে, বাঁধ ভেঙে ১১ গ্রাম প্লাবিত

ফেনী প্রতিনিধি- গত তিন দিনের টানা বর্ষণ ও ভারতের উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢলে মুহুরী নদীর বাঁধে ভাঙন দেখা দিয়েছে। এতে পানি বেড়ে ফেনীর ফুলগাজী ও পরশুরামের ১১ গ্রাম প্লাবিত হয়েছে। এ ছাড়া ছাগলনাইয়া, সোনাগাজী ও ফেনী সদর উপজেলার নিম্নাঞ্চল প্লাবিত হয়েছে।

গতকাল মঙ্গলবার দিবাগত রাত ১২টা পর্যন্ত মুহরী নদীর পানি বিপদসীমার ৮০ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে বলে জানিয়েছেন পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী কোহিনুর আলম।

ফুলগাজী সদর ইউনিয়নের দৌলতপুর ইউপি সদস্য মো. তাজুল ইসলাম জানান, মঙ্গলবার রাত ১০টার দিকে সদর ইউনিয়নের মুহুরী নদীর ফুলগাজী অংশে দুটি স্থানে ভাঙন দেখা দেয়। প্লাবিত হয় ঘনিয়া মোড়া, উত্তর দৌলতপুর, দক্ষিণ দৌলতপুর, উত্তর বরইয়া ও দক্ষিণ বরইয়া গ্রাম।

এ ছাড়া পরশুরামের দুর্গাপুর ও রতনপুর গ্রামের অধিকাংশ এলাকা বন্যার পানিতে তলিয়ে গেছে। দিনগত রাত সাড়ে ১২টার দিকে দেখা গেছে, প্লাবিত এলাকার মানুষ তাদের গবাদিপশু নিয়ে নিরাপদ স্থানের দিকে ছুটছেন।

সোনাগাজী উপকূলীয় এলাকার নিম্নাঞ্চল প্লাবিত হয়ে ভেসে গেছে পুকুর ও জলাশয়। ব্যাপক ক্ষতির সম্মুখীন হচ্ছে ফসলি জমি ও ঘরবাড়ি।

ফেনী পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. কোহিনুর আলম জানান, সোনাগাজী উপজেলার খালগুলোতে বাঁধ দিয়ে যারা প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করেছে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণসহ দ্রুত বাঁধগুলো কেটে দেওয়ার ব্যবস্থা নিবেন তিনি।