২০২৬ ফুটবল বিশ্বকাপে আয়োজক দেশ তিনটি!

স্পোর্টস্ ডেস্ক :: বিশ্বকাপের ইতিহাসে নজির৷ এই প্রথমবার তিনটি দেশ সম্মিলিতভাবে আয়োজন করবে ফিফা ওয়ার্ল্ড কাপ৷ প্রতিদ্বন্দ্বী মরক্কোকে পিছনে ফেলে ২০২৬ সালের বিশ্বকাপ আয়োজনের দায়িত্ব পেল আমেরিকা, মেক্সিকো ও কানাডা৷ ফিফার পক্ষ থেকে বুধবার এমনটাই জানানো হয়৷

রাশিয়া বিশ্বকাপের উদ্বোধনে কয়েক মুহূর্তের দেরি৷ শেষ মুহূর্তের প্রস্তুতি রাশিয়ায়৷ রুশ বিশ্বকাপের পরবর্তী ২০২২ সালের ফিফা ওয়ার্ল্ড কাপ অনুষ্ঠিত হবে কাতারে৷ কয়েক বছর আগেই কাতারের হাতে তুলে দেওয়া হয়েছে দায়িত্ব৷ তবে তার পর কোন দেশে বসবে বিশ্ব ফুটবলের মহাযজ্ঞ, তা নিয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়ার কথা ছিল রাশিয়াতেই৷ সেই মতো ফিফার বৈঠক শেষে জানিয়ে দেওয়া হয় ২০২৬ বিশ্বকাপের আয়োজক দেশের নাম৷

যদিও দেশ না বলে দেশসমূহ বলাই ঠিক৷ কেননা ২০১৬ বিশ্বকাপ আয়োজনের দায়িত্ব পেতে সম্মিলিতভাবে আবেদন জানিয়েছিল আমেরিকা, মেক্সিকো ও কানাডা৷ তাদের প্রতিদ্বন্দ্বী হিসাবে বিড জমা দিয়েছিল উত্তর আফ্রিকার দেশ মরক্কো৷ শেষ দিনের ভোটে বাজিমাৎ করে আমেরিকান জোট৷

ভোটারদের সামনে তিনটি বিকল্প রাখা হয়েছিল৷ যুগ্ম আবেদনকারী তিন দেশ, মরক্কো নতুবা দু’পক্ষের কেউই না৷ শেষের বিকল্প সংখ্যা গরিষ্ঠ হলে নতুন বিডার খোঁজার পথে হাঁটতে হত ফিফাকে৷ যদিও তেমন অবকাশ আসেনি৷ নিজ নিজ মহাদেশের পূর্ণ সমর্থন পেলেও ২০৩ ভোটের মধ্যে ১৩৪ ভোট পেয়ে আমেরিকা, মেক্সিকো ও কানাডা যুগ্মভাবে বিশ্বকাপ আয়োজনের দায়িত্ব পেয়ে যায়৷ ৬৫ ভোট পেয়ে নিরাশ হতে হয় মরক্কোকে৷ দু’টি ভোট কাস্টিং হয়নি৷ মাত্র ১টি ভোট পড়ে নতুন আয়োজক খোঁজার দিকে৷

২০২৬ বিশ্বকাপ আয়োজনের দায়িত্ব পেয়ে ইতিহাসে জায়গা করে নিল মেক্সিকো৷ প্রথম দেশ হিসাবে তিনটি বিশ্বকাপে আয়োজকের ভূমিকায় দেখা যাবে তাদের৷ এর আগে ১৯৭০ ও ১৯৮৬ সালে এককভাবে ফিফা বিশ্বকাপ আয়োজন করেছিল তারা৷ আমেরিকা এককভাবে বিশ্বকাপ আয়োজন করেছিল ১৯৯৪ সালে৷ কানাডা এই প্রথমবার বিশ্বকাপ আয়োজনের স্বাদ পেতে চলেছে৷

আয়োজক দেশের পাশাপাশি বিশ্বকাপের ফর্ম্যাট বদলেও সিলমোহর পড়ে যায়৷ ২০২৬ বিশ্বকাপে ৩২ দেশের পরিবর্তে ৪৮টি দেশকে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে দেখা যাবে৷