৮০ হাজার কিলোমিটার সাইকেল চালিয়ে রাশিয়ায় ‘মেসি’র সমর্থক!

স্পোর্টস ডেস্ক: হাজার হাজার কিলোমিটার পথ পাড়ি দিয়ে সমর্থকরা রাশিয়ার রাজধানী মস্কোয় আসছেন নিজেদের দলকে সমর্থন জানাতে। ৪ হাজার কিলোমিটার সাইকেলে চড়ে পাড়ি দিয়েছিলেন আর্জেন্টিনার এক পাগলাটে সমর্থক। সান্তেয়াগো রেয়ালে নামক সেই সমর্থক প্লেনে করে স্পেনে এসে এরপর সাইকেলে চড়ে গেলেন মস্কোয়।

আরও অনেকের খবর এসেছে। পর্তুগাল, সৌদি আরবের আরও বেশ কয়েকজন সমর্থক সাইকেলে চড়ে প্রিয় দলের খেলা দেখতে এসেছেন রাশিয়ায়। তবে আর্জেন্টিনার মাতিয়া আমাইয়া যা করেছেন, তা রীতিমত সব বিস্ময়কে ছাড়িয়ে গেছে। অবাক হওয়ার সব পর্যায়কেও পেছনে ফেলে দিয়েছেন তিনি। আজ সকালে মস্কোর প্রধান ভেন্যু লুঝনিকি স্টেডিয়ামের পাশে এসে পৌঁছান তিনি।

স্থানীয় সময় দুপুর ২টায় খুলে দেয়া হয় লুঝনিকি স্টেডিয়ামের গেট। কিন্তু ওই সময় দেখা গেলো স্টেডিয়াম চত্ত্বরে সাংবাদিকদের ভিড়। মাতিয়া আমাইয়াকে ঘিরে রেখেছেন তারা। ছবি তুলছেন। কেউ কেউ তুলছেন সেলফি। কেউ বা অটোগ্রাফের জন্য খাতা-কলম এগিয়ে ধরছেন তার দিকে। রীতিমত মাঠের খেলা শুরুর আগে মাঠের বাইরের তারকায় পরিণত হয়েছেন মাতিয়া আমাইয়া।

আর্জেন্টাইন এই পাগলাটে সমর্থককে বিস্ময়কর আখ্যা দেয়ার একটাই কারণ। তার অতি পাগলামির কারণে। অবাক করা তথ্য হলো, ৮০ হাজার কিলোমিটার সাইকেল চালিয়ে ৩৩ বছর বয়সী মাতিয়া এসেছেন রাশিয়ায়। ৮০ হাজার কিলোমিটার পথ পাড়ি দিতে তিনি সাইকেল চালিয়েছেন ৫ বছর। পাড়ি দিয়েছেন ৩৭টি দেশ।

যে সাইকেলে চড়ে তিনি রাশিয়ায় পৌঁছেছেন সেটাকে রীতিমত ‘ঘর-বাড়ি’ বানিয়ে ফেলেছেন তিনি। সাইকেলে রয়েছে তার জন্য খাবার, পোশাক। যে দেশেই গেছেন, সংগ্রহে নিয়েছেন সে দেশের পতাকা। সবগুলো দেশের পতাকা সঙ্গে নিয়ে এসেছেন রাশিয়ায়। ৫ বছর ধরে সাইকেল চালিয়েছেন। অর্থ্যাৎ, ২০১৪ ব্রাজিল বিশ্বকাপেরও আগে তিনি ঘর ছেড়েছেন। কতগুলো দেশ তিনি পাড়ি দিয়েছেন, সে তথ্য তো জানিয়েছেনই।