জন্মদিনের দাওয়াত দিয়ে ডেকে এনে তরুণীকে গণধর্ষণ!

সৈয়দ সিফাত লিংকন, নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি :: নারায়ণগঞ্জ ফতুল্লায় জন্মদিনের নিমন্ত্রন দিয়ে ১৯ বছরের তরুণীকে গণধর্ষন করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। রবিবার ধর্ষণের শিকার তরুনী এ ব্যাপরে ফতুল্লা মডেল থানায় মামলা দায়ের করেছে।

এ ঘটনার পর মোক্তাদির রহমান ওরফে একরামকে (২৪) গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। সে আল্লামা ইকবাল রোডস্থ মৃত শামসুল হকের ভাড়াটিয়া মৃত হাফিজুর রহমানের ছেলে। শনিবার রাতে শহরের আল্লামা ইকবাল রোডের মৃত শামসুল হকের ভাড়াটিয়া বাসায় গণধর্ষনের ঘটনা ঘটে।

মামলার সূত্রে জানা গেছে, তরুনী শহরের কালিরবাজারস্থ একটি হোসিয়ারী কারখানায় চাকরি করে। পূর্বের একটি কারখানার কর্মরত লাকি বাজার এলাকার আরিফ, মোক্তাদির রহমান ওরফে একরাম, মিলন, হৃদয় সহ আরো কয়েকজনের সাথে বন্ধুত্ব ছিল। ওই গার্মেন্টস থেকে চাকরি ছেড়ে দেয়ার পর তাদের সাথে সম্পর্কসহ যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন করা হয়। শনিবার সন্ধায় বর্তমান কর্মস্থল হোসিয়ারীর ডিউটি শেষে নবীগঞ্জ গুদারাঘাটে বেড়াতে যায়। তখন দেখা হয় পুরনো বন্ধুদের সাথে।

তারা উক্ত তরুনীকে দেখে এক বন্ধুর বাড়িতে জন্মদিনের অনুষ্ঠানে যাওয়ার প্রস্তাব দেয়। প্রথমে তরুনী রাজি না হলেও পরে অনুরোধ করায় অনুষ্ঠানে যাওয়ার রাজি হয়। তখন তরুনীকে মৃত শামসুল হকের ভাড়াটিয়া বাড়ি মোক্তাদির রহমান ওরফে একরামের বাসায় নিয়ে যায়। সেই বাসায় গিয়ে দেখে কোন জন্মদিনের কোন অনুষ্ঠান নাই। পরে উক্ত তরুনীকে আরিফ, মোক্তাদির রহমান ওরফে একরাম, মিলন পালাক্রমে ধর্ষণ করে।

এ ব্যাপারে ফতুল্লা থানা ওসি শাহ মো. মঞ্জুর কাদের বলেছেন, ইতোমধ্যেই একজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এ ঘটনায় জড়িত বাকিদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।