অবৈধ বিদ্যুৎ সংযোগ লাইন বিচ্ছিন্ন করতে বাধা দিলে ২ প্রকৌশলীর ওপর যুবলীগের হামলা

সময়ের কণ্ঠস্বর ডেস্ক : কর্ণফুলী উপজেলার চরপাথরঘাটা ইউনিয়ন এলাকায় এফবি লিউ নামের একটি জাহাজে অবৈধ বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করতে গিয়ে সন্ত্রাসী হামলার শিকার হয়েছেন বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ডের (পিডিবি) দুই উপসহকারী প্রকৌশলী। তারা হলেন, পটিয়া পিডিবির উপসহকারী প্রকৌশলী জহিরুল হক ও উপসহকারী প্রকৌশলী আবু সালেহ।

গুরুতর আহত দুই প্রকৌশলী বর্তমানে পটিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন। এ ঘটনায় পিডিবির সহকারী প্রকৌশলী জাহাঙ্গীর আলম বাদী হয়ে কর্ণফুলী থানায় মামলা করেছেন।

প্রত্যক্ষদর্শী ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, এফবি লিউ নামের জাহাজটিতে দীর্ঘদিন ধরে অবৈধ বিদ্যুৎ সংযোগ নিয়ে জাহাজের মেরামত ও ওয়েল্ডিংয়ের কাজ করা হচ্ছিল। এ খবর জানতে পেরে রোববার বিকেলে পিডিবি কর্তৃপক্ষ পিডিবির পটিয়া অঞ্চলের উপসহকারী প্রকৌশলী জহিরুল হকের নেতৃত্বে একটি দল অবৈধ সংযোগ লাইন বিচ্ছিন্ন করতে যায়।

এ সময় প্রকৌশলীকে সংযোগ লাইন বিচ্ছিন্ন করতে বাধা দিলে বাকবিতণ্ডার সৃষ্টি হয়। একপর্যায়ে জাহাজটির মালিক ও কর্ণফুলী উপজেলা যুবলীগ নেতা আনোয়ার সাদাত মোবারকের নেতৃত্বে প্রকৌশলীদের ওপর হামলা চালায় তার অনুসারীরা। তারা লাঠি দিয়ে আঘাত করে প্রকৌশলীদের মাথায়। আহতদের স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসার পথে পার্শ্ববর্তী ইউসুফের দোকান থেকে লাঠি ও ধারালো অস্ত্র নিয়ে দ্বিতীয় দফায় ফের হামলা চালানো হয়।

হামলায় অংশগ্রহণকারীরা হলো উপজেলার চরপাথরঘাটা ইউনিয়নের নুরুল ইসলামের ছেলে মোহাম্মদ রুবেল, একই এলাকার মোহাম্মদ শরীফের ছেলে আবদুল লতিফ, জলিল আহমদের ছেলে আজাদ, চরলক্ষ্যা ইউনিয়নের মোহাম্মদ রফিকের ছেলে তারেক হোসেন মুন্না এবং মোহাম্মদ আলীর ছেলে মোহাম্মদ সাইফুল।

রোববার সন্ধ্যায় এ ঘটনা ঘটে। এফবি লিউ জাহাজের মালিক কর্ণফুলী উপজেলা যুবলীগের বিতর্কিত নেতা আনোয়ার সাদাত মোবারক।

এ বিষয়ে কর্ণফুলী থানার ওসি সৈয়দুল মোস্তফা জানান, হামলাকারীদের দ্রুত গ্রেফতারে অভিযান অব্যাহত রয়েছে।