জার্মানিকে বিদায় জানালেন ওজিল

স্পোর্টস আপডেট ডেস্ক- ধকলটা আর নিতে পারলেন না ওজিল। তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়েপ এরদোগানের সঙ্গে ছবি তোলা নিয়ে প্রথম সমালোচনার মুখে পড়েন। তার শেষ এখনো হয়নি। এরপর বিশ্বকাপে ভালো খেলতে না পারার জন্য দুয়ো শোনেন ওজিল।

যে জার্মানি দল তাকে ছাড়া ভাবা কঠিন ছিল সেই ওজিল শুরুর একাদশে জায়গা হারালেন। এরপর দক্ষিণ কোরিয়ার বিপক্ষে নিষ্প্রভ ওজিল এবং হেরে গ্রুপ পর্ব থেকে বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন জার্মানির বিদায়। রাশিয়ার আসরে দলের ব্যর্থতার জন্য তাকে দায়ী করা হচ্ছে। এ বিতর্কের মধ্যেই জার্মানির হয়ে আর খেলতে চান না বলে ঘোষণা দেন দিলেন ওজিল।

রোববার এক বিবৃতিতে ২৯ বছর বয়সী এই মিডফিল্ডার এ সিদ্ধান্তের কথা জানান।

মেসুত ওজিল ২০১৪ ব্রাজিল বিশ্বকাপে দলের হয়ে দারুণ পারফর্ম করেন। জোয়াকিম লোর দলের মাঝমাঠের প্রাণভ্রমরা ছিলেন তিনি। জার্মানির হয়ে আর্সেনোলে খেলা এই তারকা ৯২ ম্যাচ খেলেছেন। ২৩ গোলের পাশাপাশি গোলে সহায়তা করেছেন ৪০টি। মাঝমাঠ দাপিয়ে বেড়ানো এই প্লে মেকার রাশিয়া বিশ্বকাপে কম পরিশ্রম করে খেলেছেন বলে অনেকে সমালোচনা করেছেন।

আন্তর্জাতিক ফুটবল থেকে বিদায় নেওয়ার ব্যাপারে সাবেক রিয়াল তারকা ওজিল বলেন, ‘অনেক বিবেচনার পর ভারী মন নিয়ে বিষয়টি সবাইকে জানাচ্ছি। সম্প্রতি আমাকে নিয়ে যা হয়েছে তাতে আমি জার্মানির হয়ে আন্তর্জাতিক ফুটবল আর না খেলার সিদ্ধান্ত নিচ্ছি। আমি বর্ণবাদ এবং অসম্মানের মুখোমুখি হয়েছি।’

জার্মানির জার্সি পরে ওজিল খেলার যোগ্যতা হারিয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন সাবেক ফুটবলারদের কেউ কেউ। এ বিষয়ে ওজিল বলেন, ‘আমি জার্মানির জার্সি পরে খেলতে সবসময় গর্ব বোধ করতাম। কিন্তু জার্সিটা আমি আর পরছি না।’

ওজিলের বাবা ছিলেন তুরস্কের নাগরিক। কিন্তু জার্মানির হয়ে খেলার সিদ্ধান্ত নেন ওজিল। ২০০৬ সালে জার্মানির হয়ে খেলার সিদ্ধান্ত নেন তিনি। জার্মানির হয়ে অনূর্ধ্ব-২১ ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়নশীপ জেতেন ওজিল। এরপর ২০১৪ বিশ্বকাপ জয়ে রাখেন বড় ভূমিকা।