টয়লেট থেকে দশগুণ বেশি জীবাণু স্মার্টফোনে

বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি নিউজ ডেস্কঃ কেউ যদি ভেবে থাকেন ঘরবাড়ি বা অফিস-আদালতে টয়লেটই সবচেয়ে নোংরা জায়গা, যেখানে জীবাণুরা মনের আনন্দে নেচে বেড়ায়, তবে তিনি নিজের স্মার্টফোনটা একবার চোখ বুলিয়ে নিতে পারেন।

যদিও খালি চোখে দেখা মিলবে না, তবুও জেনে নিন এই স্মার্টফোনেই টয়েলেট সিটের চেয়ে দশগুণ বেশি জীবাণু থাকে। যেনতেন কারো তথ্য নয়, গবেষণায় উঠে এসেছে এ তথ্য। ইনসুরেন্স২গো’র চালানো গবেষণায় দেখা গেছে স্মার্টফোনের পর্দা, ব্যাক বাটন, লক বাটন এবং হোম বাটনে টয়লেট আসন এবং ফ্লাশ-এর চেয়ে বেশি জীবাণু থাকে।

যুক্তরাজ্যের বাসিন্দাদের নিয়ে এই গবেষণা চালিয়েছে গেজেটে ইন্স্যুরেন্স প্রদানকারী যুক্তরাজ্যভিত্তিক প্রতিষ্ঠান ইনসুরেন্স ২ গো। বলা হয়েছে- এর থেকে ধারণা করা যেতে পারে যুক্তরাজ্যের বাসিন্দারা স্মার্টফোন পরিষ্কার করেন না। গবেষণায় আরো উঠে এসেছে এক তৃতীয়াংশের বেশি স্মার্টফোন ব্যবহারকারী পরিষ্কারক তরল বা এধরনের কিছু দিয়ে স্মার্টফোন পরিষ্কার করেন না– খবর ব্রিটিশ ট্যাবলয়েড মিররের।

প্রতি ছয় মাসে দেশটির ২০ জনের মধ্যে মাত্র একজন স্মার্টফোন পরিষ্কার করেন বলেও প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে। জনপ্রিয় তিন স্মার্টফোন গ্রাহকদের নিয়ে এই গবেষণা চালানো হয়। এর মধ্যে রয়েছেন অ্যাপলের আইফোন, স্যামসাং গ্যালাক্সি এবং গুগল পিক্সেল ব্যবহারকারী। গবেষণায় বায়ুজীবী ব্যাকটেরিয়া, ছত্রাক এবং জীবাণুর বাসস্থান পরীক্ষা করা হয়েছে।

জীবাণুর বাসস্থান যদি প্রতি বর্গসেন্টিমিটারে একক শূন্য হয় তবে এটি আক্রান্ত নয় বলে ধরা হয়। স্মার্টফোন পর্দায় এই এককের পরিমাণ পাওয়া গেছে ২৫৪.৯, যেখানে টয়লেট আসন ও ফ্লাশ-এ এককের পরিমাণ মাত্র ২৪।

স্মার্টফোনের এই জীবাণু কীভাবে ত্বক এবং স্বাস্থ্যের ওপর প্রভাব ফেলতে পারে সে বিষয়ে এলিট অ্যাসথেটিকস-এর ড. শিরিন লাখানি বলেন, আমাদের স্মার্টফোন আসলেই ত্বক নোংরা হওয়া এবং ত্বকের সমস্যার বড় মাধ্যম, যা ব্রণের কারণ। নিয়মিত অ্যালকোহল দিয়ে স্মার্টফোন পরিষ্কার করে ব্যাকটেরিয়া মুক্ত থাকা যাবে বলে পরামর্শ দিয়েছেন তিনি।