সংবাদ শিরোনাম
  • আজ ৩০শে আশ্বিন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

অভাবের তাড়নায় টাকার বিনিময়ে মাত্র ৫ দিনের সন্তানকে দত্তক দিলেন এক অভাগা মা!

১:৫০ অপরাহ্ণ | রবিবার, অক্টোবর ১৪, ২০১৮ সমস্যা ও সমাধান

সময়ের কণ্ঠস্বর: গল্পটা এক অভাগা মায়ের। পৃথিবীর সবচেয়ে কঠিন এবং স্পর্শকাতর সম্পর্ক হচ্ছে মাতৃত্ব। সে সম্পর্কেও ফাটল ধরালো শুধুই অভাব। অভাবের তাড়নায় কিছু টাকার বিনিময়ে মাত্র ৫ দিনের সন্তানের মাতৃত্বের সম্পর্ক ছেদ করে দত্তক দিতে হয়েছে অভাগা মা কুলছুমা বেগমকে।

কুলছুমা বেগমের ৪ কন্যা সন্তান রয়েছে। যেখানে নিজেদের পেট চালাতে হিমশিম খেতে হয়, সেখানে চার সন্তান নিয়ে মানবেতর জীবন-যাপন করছেন তারা। তাদের বড় মেয়ে ইয়াছমিন ৪র্থ শ্রেণিতে পড়ে। মেজ মেয়ে লাবনী ৩য় শ্রেণিতে পড়ে। সেজ মেয়ে কাকলী এখনো স্কুলের যাওয়ার উপযুক্ত হয়নি।

গত সপ্তাহেও এক কন্যা সন্তানের জন্ম দেন কুলছুমা। তাদের ভরণ-পোষণ দিতে অপারগ হওয়ায় মাত্র ৫ দিনের শিশুকে দত্তক দিতে হয়। বিনিময়ে ওষুধ আর হাসপাতালের সিজার বিল মেটানোর জন্য কিছু টাকা পান।

স্বামী দ্বীন ইসলাম একসময় জেলে ছিলেন। ৭০ হাজার টাকা ঋণ নিয়ে স্থানীয় আশা সমিতি থেকে মাছ ধরার জন্য ছোট একটি নৌকাও কিনেছিলেন। মাত্র ৮ কিস্তি পরিশোধ করতে না করতেই কুলছুমাদের মাছ ধরার নৌকাটি চুরি হয়ে যায়। সংসারের অভাব আর ঋণের বোঝা মাথায় নিয়ে মানবেতর জীবন কাটাতে হচ্ছে।

অর্থনৈতিক সংকটের কারণে সংসার জীবনে দুঃস্বপ্নে রাত কাটে কুলছুমার। বর্তমানে স্বামী রিকশা চালিয়ে যা আয় করেন তা দিয়েই কোনরকমে সংসারে চলে। যে টাকা উপার্জন হয় তাতে চার সন্তান নিয়ে বসবাস করা বড়ই কষ্টসাধ্য। কখনো দু’বেলা আবার কখনো একবেলা আবার কখনো খেয়ে না খেয়েই চলছে তাদের জীবন।